কলকাতা: ১ মার্চ কলকাতায় সভা করবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং বিজেপি নেতা অমিত শাহ, তবে অনুমতি নিয়ে গ্যাঁড়াকল হলে বিজেপি বলেছিল আদালতের দ্বারস্থ হবে, তবে সেই প্রয়োজন হবে না, কারণ অনুমতি মঞ্জুর করেছে কলকাতা পুলিশ।

ফেব্রুয়ারির ২০ তারিখ ভারতীয় জনতা পার্টির তরফে একটি চিঠি লিখে শহিদ মিনারে নাগরিকত্ব আইনের সমর্থনে সভার অনুমতির আবেদন করা হয়েছিল।

এর আগে, আর্মি ইস্টার্ন কম্যান্ডকে চিঠি লিখে অনুমতি চাওয়া হয়েছিল যেহেতু ওই জায়গাটি তাঁদের আওতায় আসে। ইস্টার্ন কম্যাণ্ড অনুমতি দিলে কলকাটা পুলিশের তরফে বিজেপির পরিচালনা কমিটির সঙ্গে যোগাযোগ করা হয় যে সোমবার সভা করা যাবে।

যদিও, কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী যারা অনুষ্ঠান পরিচালনা করবেন তাঁদের মাইক্রোফোনের ব্যবহার নিষিদ্ধ রাখতে হবে এবং বাসযোগ্য অঞ্চলে মাধ্যমিক বা অন্য বোর্ড পরীক্ষার্থীদের যাতে অসুবিধা না হয় সেই জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার এই প্রসঙ্গে বলেছেন, “কলকাতা পুলিশ সভা করার অনুমতি দিয়েছে। পরীক্ষার্থীদের কোনও অসুবিধা হবে না যেহেতু শহিদ মিনার এলাকা জনবসতিপূর্ণ এলাকা থেকে অনেক দূরে। আমরা শান্তিপূর্ণভাবে জনসভা করব যাতে আদালতের নির্দেশ বহাল থাকে”।

পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী, রাজ্য বিজেপির তরফে নাগরিকত্ব আইন আনার জন্য অভিনন্দিত করা হবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। নাগরিকত্ব আইন পাশ হওয়ার পর এটি তাঁর িদ্বতীয় সফর হতে চলেছে। সিএএ এর সমর্থনে এর আগে অক্টোবরের ১ তারিখ নেতাজী ইনডোর স্টেডিয়ামে সভা করেছিলেন অমিত শাহ।

প্রসঙ্গত, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে লাগাতার আন্দোলন-বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। লাগাতার আন্দোলন-বিক্ষোভে কোনঠাসা বিজেপি। এই অবস্থায় কলকাতায় ফের একবার আসতে চলেছেন তিনি। তবে এবার যে তাঁর পাখির চোখ পুর নির্বাচন বলাই বাহুল্য।