স্টাফ রিপোর্টার, কালনা: বাড়ির খামারে আমগাছে মিলল কাকা ও ভাইপোর মৃতদেহ। আর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য দেখা দিল বর্ধমানের মন্তেশ্বর থানার খাঁদরা গ্রামে। মৃত ব্যক্তিদের নাম প্রশান্ত রায় (২০) এবং বিধান রায় (১৮)। সম্পর্কে এঁরা দুজনে কাকা ও ভাইপো।

রবিবার সন্ধ্যায় একই গেঞ্জির ফাঁসে আমগাছের ডালে কাকা ভাইপোর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয়। তাঁদের উদ্ধার করে মেমারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিত্সকরা তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন। প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান এটি আত্মহত্যার ঘটনাই। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

মৃতের আত্মীয় সাগর রায় জানিয়েছেন, মৃত প্রশান্ত রায় দিল্লীতে রাজ মিস্ত্রির কাজ করতেন। দশদিন আগেই তিনি পুজো উপলক্ষে বাড়ি ফিরেছিলেন। তারপর গতকাল ভাইপো বিধান রায়কে নিয়ে সরস্বতী ঠাকুর দেখতে বেরিয়ে যান। বিধান গতবছর উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দেয়। কি কারণে এই আত্মহত্যা বুঝে উঠতে পারছেন না পরিবারের সদস্যরা।

সাগরবাবু জানিয়েছেন, রবিবার বাড়ি থেকে বেড়িয়ে মদ খায় দুজনেই। তারপরই এই ঘটনা ঘটায়। তিনি জানিয়েছেন, কোনো অশান্তির ঘটনাও ঘটেনি। রবিবার বিকালে প্রশান্ত রায় ভাইপো বিধানকে নিয়ে ঠাকুর দেখতে যাচ্ছেন বলে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে যান। সন্ধ্যে প্রায় সাড়ে সাতটা নাগাদ গ্রামবাসীরাই প্রথম দেখতে পান আমগাছে ঝুলন্ত দেহ। কিন্তু কি কারণে এই ঘটনা ঘটল তা নিয়ে রীতিমত ধন্দে পরিবারের লোকজন।