মুম্বই: বাবা রামদেবে পতঞ্জলির ২০২০ আইপিএলের টাইটেল স্পনসরের দৌড়ে নাম লেখাতে চলেছে শিক্ষা প্রযুক্তি সংস্থা আনাকাডেমি৷ চিনা মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থা ভিভো সরে দাঁড়ানোর পর সোমবার চলতি মরশুমের আইপিএলের টাইটেল স্পনসরের জন্য টেন্ডার আহ্বান করে বিসিসিআই৷

১৮ অগস্টের মধ্যে বিড জমা দিতে হবে৷ তার পরই সবেচেয় দর হাঁকানো সংস্থাকে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে অনুষ্ঠিতে হতে চলা আইপিএলের টাইটেল স্পনসর হিসেবে বেছে নেবে বিসিসিআই৷ দু’দিন আগেই শোনা গিয়েছে, আইপিএলের স্পনসর করতে আগ্রহ দেখিয়েছে বাবা রামদেবের আয়ুর্বেদ সংস্থা পতঞ্জলি। এবার স্পনসরশিপের দৌড়ে আগ্রহ দেখাল শিক্ষা প্রযুক্তি সংস্থা আনাকাডেমি৷

বিসিসিআই-এর এক আধিকারিক জানিয়েছেন, আনাকাডেমি সংস্থাটি বিডের কাগজপত্র তুলেছে৷ তবে এর বাইরে বেশি কিছু মন্তব্য করতে চাননি তিনি। নাম প্রকাশ করা যাবে না, এই শর্তে বোর্ডের আধিকারিক সংবাদ সংস্থা পিটিআই-কে জানিয়েছেন, ‘আমি নিশ্চিত করতে পারি যে, আনাকাডেমি চলতি মরশুমে আইপিএলের স্পনসরের জন্য আগ্রহ দেখিয়েছে৷ বিডের কাগজপত্র তুলেছে তারা। আমি শুনেছি, ওরা বিড করবে৷ এ ব্যাপারে এই সংস্থা বেশ সিরিয়াস। সুতরাং পতঞ্জলি যদি বিড করে, তবে প্রতিযোগিতা হবে৷’

ভারত-চিন রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে চলতি বছর আইপিএল থেকে সরে দাঁড়িয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগের টাইটেল স্পনসর থেকে সরে গিয়েছে চিনা মোবাইল সংস্থা ভিভো৷ বিসিসিআইও ভিভো-কে এই বছরের জন্য সাসপেন্ড করেছে৷ প্রতি বছর টাইটেল স্পনসর হিসেবে ভিভো ৪৪০ কোটি টাকা বোর্ডকে দিত৷ ২০২০ আইপিএলে অর্থাৎ ৪ মাস ১৩ দিনের জন্য বিসিসিআই কমপক্ষে ৩০০ থেকে ৩৫০ কোটি টাকার মধ্যে টাইটেল স্পনসরের টেন্ডার ডেকেছে৷

তবে আনাকাডেমি আইপিএলের সেন্ট্রাল স্পনসরশিপ পুলের একটি অংশে ড্রিম-১১ এবং পেটিএম-এর মতো অন্যান্য সংস্থাও রয়েছে বলে জানিয়েছেন বোর্ডের ওই আধিকারিক৷ তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, আনাকাডেমি ইতিমধ্যে ২০২০ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত আইপিএলের সেন্ট্রাল স্পনসর পুলে রয়েছে৷’

কিন্তু সেন্ট্রাল স্পনসরশিপ এবং টাইটেল স্পনসরশিপের মধ্যে পার্থক্য জানতে চাইলে, বোর্ডের ওই আধিকারিক ব্যাখ্যা করে বলেন, ‘সেন্ট্রাল স্পনসরশিপে জার্সির অধিকার অন্তর্ভুক্ত নয়। আইপিএলে জার্সি লোগো কেবল টাইটেল স্পনসরশিপে পৃষ্ঠপোষক হতে পারে৷ বিভিন্ন দলের স্পনসর ছাড়াও তা হতে পারে। তবে তারা যদি টাইটেল স্পনসর হয়ে যায়, সেক্ষেত্রে তাদের বিভিন্ন ব্র্যান্ডিংয়ের বৈশিষ্ট্যগুলির অধিকার পাবে৷’

করোনাভাইরাসের কারণে মার্চ মাস থেকে স্থগিত হওয়া আইপিএল এবার হতে চলেছে আমিরশাহীতে৷ মরু শহরে আইপিএলের ত্রয়োদশ সংস্করণ শুরু হবে ১৯ সেপ্টেম্বর৷ ফাইনাল ১০ নভেম্বর৷ আমিরশাহীর তিন প্রধান শহর আবুধাবি, দুবাই এবং শারজায় হবে ৫৩ দিনের টুর্নামেন্টের ম্যাচগুলি৷

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা