নয়াদিল্লি: করোনা আতঙ্কে এবার বুধবার অযোধ্যায় রাম মন্দিরের ভূমি পুজো এড়াচ্ছেন বিজেপি নেত্রী উমা ভারতী। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর আতঙ্কে ভুগছেন তিনিও। সেই কারণেই অযোধ্যায় গেলেও রাম মন্দিরের ভূমিপুজোয় অংশগ্রহণ করবেন না তিনি।

সোমবারই টুইট করেন বিজেপি নেত্রী উমা ভারতী। টুইটে তিনি জানান, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে তিনিও বেশ আতঙ্কিত পড়েছেন। ভূমিপুজোয় গিয়ে করোনার ঝুঁকি বাড়াতে চান না তিনি। তবে রামলালার দর্শন করতে অযোধ্যায় যাওয়ার কথাও জানিয়েছেন উমা ভারতী।

টুইটারে বিজেপিনেত্রী আরও লেখেন, ‘অমিত শাহ এবং উত্তরপ্রদেশের বিজেপি নেতাদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর শুনে রাম মন্দিরের শিলান্যাসে থাকা নিয়ে চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলাম। প্রধানমন্ত্রীকে নিয়েও আমি উদ্বিগ্ন।। ভোপাল থেকে রওনা দিয়ে মঙ্গলবার সন্ধেয় অযোধ্যা পৌঁছোব।’

তিনি আরও লেখেন, ‘দীর্ঘ যাত্রাপথে আমিও কোনও করোনা রোগীর সংস্পর্শে আসতেই পারি। সেই কারণেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও ভূমি পুজোয় উপস্থিত বাকিদের থেকে দূরত্ব বজায় রাখব। পরে রামলালার দর্শন করব।’

ইতিমধ্যেই রামজন্মভূমি ট্রাস্টকে ভূমি পুজোর অনুষ্ঠানের অতিথি তালিকা থেকে তাঁর নাম বাদ দিতে আবেদন জানিয়েছেন উমা ভারতী। এদিকে, ৫ অগাষ্ট রাম মন্দিরের ভূমি পুজোর জন্য কোনও আয়োজনই বাকি রাখছেন না মন্দির ট্রাস্ট কর্তৃপক্ষ। ভূমি পুজোয় উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী-সহ বিজেপির শীর্ষ নেতারা।

তবে ভূমি পুজোর ভিড়কে কেন্দ্র করে করোনার সংক্রমণ যাতে এলাকায় ছড়িয়ে না পড়ে সেব্যাপারে সচেষ্ট প্রশাসন। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ভূমি পুজোর দিন সেখানে থাকতে পারবেন না কোনও সাধারণ মানুষ বা ভক্ত। ৫ জন বা তার বেশি মানুষের কোনও জমায়েত করা চলবে না ওই এলাকায়।

সম্প্রতি রাম মন্দিরের একজন পুরোহিত, যাঁর ওই ভূমি পুজোয় অংশ নেওয়ার কথা ছিল তিনিও করোনা আক্রান্ত হন। ফলে আরও কড়াকড়ি করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, যে পুলিশ কর্মীরা রাম মন্দিরের নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন, তাঁদের মধ্যে ১৬ জন কর্মীও করোনা আক্রান্ত হন।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও