গুয়াহাটি: কোনও নাশকতার কর্মসূচি নয়, বরং শান্তিতে যুব বিশ্বকাপ ফুটবল ম্যাচ হোক৷ এমনই বার্তা দিয়েছে অসমের বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন আলফা (স্বাধীনতা)৷ যুব বিশ্বকাপে রবিবার গুয়াহাটিতে প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে নিউ ক্যালিডোনিয়া ও ফ্রান্স, দ্বিতীয় ম্যাচে খেলবে জাপান ও হন্ডুরাস৷ স্টেডিয়ামে নিরাপত্তার কড়াকড়ি৷ স্থানীয় ফুটবল প্রেমীদের মধ্যে চড়েছে উত্তেজনা৷

আলফা (স্বা.) প্রধান পরেশ বড়ুয়া৷ তিনি নিজেও একজন ফুটবল প্রেমিক৷ একসময় চুটিয়ে ফুটবল খেলতেন৷ রক্তাক্ত বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলনে জড়িয়ে খেলা ছেড়েছেন৷ গোপন ডেরা থেকে চলছে তার সশস্ত্র আন্দোলন৷ গোয়েন্দা রিপোর্টে বলা হয়েছে, চিনের ঘাঁটি থেকেই উত্তর পূর্ব ভারতে নাশকতা চালাতে মরিয়া আলফা প্রধান৷ তার ঘাঁটি মায়ানমার লাগোয়া চিনের রুইলি শহরে৷

পড়ুন: চিন থেকে নাশকতার ছক আলফা সুপ্রিমো পরেশ বড়ুয়ার

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে পাঠানো বিবৃতিতে বিশ্বকাপের ম্যাচ শান্তিপূর্ণ প্রক্রিয়ায় চালানোর বার্তা পাঠিয়েছে আলফা (স্বা)৷ ফিফাকে ধন্যবাদ জানিয়েছে সংগঠনের প্রেসিডেন্ট অভিজিৎ অসম৷

এদিকে হাই প্রোফাইল ফিফা ম্যাচ ঘিরে কড়া নিরাপত্তায় মোড়া গুয়াহাটি৷ সাংবাদিক সম্মেলনে রাজ্য পুলিশের ডিজি মুকুল সহায় জানিয়েছেন, ত্রিস্তরীয় সুরক্ষা বলয়ে মুড়ে দেওয়া হয়েছে গুয়াহাটির ইন্দিরা গান্ধী অ্যাথলেটিক স্টেডিয়ামকে৷ নাশকতা রুখতে সম্পূর্ণ তৈরি পুলিশ প্রশাসন৷ পুরো শহরকে ছটি জোনে ভাগ করা হয়েছে৷ এসপি পদমর্যাদার অফিসারদের দায়িত্বে থাকছে একটি কোরে জোন৷ নাশকতা রুখতে ফিফার বেছে নেওয়া দুশো এসআই থাকছেন৷

- Advertisement -