গুয়াহাটি: সিএএ সংক্রান্ত বিরোধিতার জেরে উত্তপ্ত অসমে সাম্প্রতিক সময়ে বারে বারে অস্বস্তিতে পড়েছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার। রক্তাক্ত আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছে বিভিন্ন উপজাতি সশস্ত্র গোষ্ঠী। এসবের মাঝে সরকারকে স্বস্তি দিল বিদ্রোহী সংগঠগুলির বৃহত্তম অস্ত্র সমর্পণ।

অন্তত ৬৪৪ জন সশস্ত্র বিদ্রোহী আত্মসমর্পণ করল সরকারে কাছে। গুয়াহাটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অডিটোরিয়ামে এই অনুষ্ঠানে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল। তাঁর সামনে বিভিন্ন সংগঠনের জঙ্গি সদস্যরা আগ্নেয়াস্ত্র নামিয়ে রাখে।

এই ৬৪৪ জনের মধ্যে ৫০ জন অসমের সর্বাধিক শক্তিশালী বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন আলফা ( স্বাধীনতা), ৮ জন বোড়ো সংগঠন এনডিএফবি, কামতাপুর লিবারেশন অর্গানাইজেশনের বা কেএলও সশস্ত্র গোষ্ঠীর ৬ জন।

প্রথম সারির সশস্ত্র বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী ছাড়াও অস্ত্র সর্মপণ করেছে রাভা ন্যাশনাল ফ্রন্টের ১৩ জন ও এক মাওবাদী। অসম স্বরাষ্ট্র দফতর জানাচ্ছে, অনুষ্ঠানে সর্বাধিক আত্মসমর্পণ করে ন্যাশনাল লিবারেশন ফ্রন্ট অফ বেঙ্গলি বা এনএলএফবি সংগঠনের ৩০১ জন জঙ্গি। ১৭৮ জন এসেছে আদিবাসী ড্রাগন ফ্রন্টের, ৮৭ জন ন্যাশনাল সান্তাল লিবারেশন আর্মির।

মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সেনোয়াল জানিয়েছেন, বিজেপি অসমের ক্ষমতায় আসার পর জঙ্গি মুক্ত রাজ্য গড়ার কাজকে প্রাধান্য দিয়েছে। এই বিরাট সংখ্যক সশস্ত্র বিদ্রোহীদের আত্মসমর্পণ সেই কাজকে আরও এগিয়ে নিয়ে গেল।