গুয়াহাটি: আলফা (স্বাধীনতা) জঙ্গি সংগঠনের বড়সড় নাশকতার ছক বানচাল হয়ে গেল অসমে৷ বিপুল পরিমাণে আগ্নেয়াস্ত্র সহ তিন আলফা জঙ্গি ধরা পড়েছে৷ তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে, স্বয়ংক্রিয় বন্দুক, কার্তুজ৷ তিনসুকিয়া জেলার তারানি রিজার্ভ ফরেস্টে অভিযান চলাকালীন এই তিন জঙ্গি ধরা পড়ে৷

সম্প্রতি অসমে নাশকতা হতে পারে বলে গোয়েন্দা বিভাগ সতর্কতা জারি করেছে৷ বলা হয়েছে গুয়াহাটি ও বিভিন্ন জনবহুল স্থানে হামলা হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে৷ আগেও এভাবেই বারে বারে রক্তাক্ত হয়েছে অসম সহ উত্তর পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন রাজ্য৷ নিম্ন অসমে রয়েছে জেএমবি-আইএস হামলা আশঙ্কা৷ ঠিক তেমনই উজানি অসমে রয়েছে অহম বিচ্ছিন্নতাবাদীদের হামলার সম্ভাবনা৷

সংবাদ সংস্থা এএনআই জানাচ্ছে, তিনসুকিয়া জেলার তারানি রিজার্ভ ফরেস্ট থেকে ধরা পড়া তিন যুবক স্বীকার করেছে তারা আলফা (স্বাধীনতা) সংগঠনে যুক্ত৷ সম্প্রতি মায়ানমারের জঙ্গি শিবির থেকে পালিয়ে এসে এক আলফা জঙ্গি আত্মসমর্পণ করে৷ সে জানিয়েছিল জঙ্গি শিবিরের নিয়ম ভাঙার পর ভয়ঙ্কর শাস্তির কথা৷ যারা পালাতে গিয়ে ধরা পড়ে তাদের মেরে গভীর জঙ্গলে পুঁতে দেওয়া হয়৷

এবার ধরা পড় তিন আলফা জঙ্গিকে জেরা করে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা করা হচ্ছে৷ আলফা (স্বাধীনতা) সংগঠনের প্রধান পরেশ বড়ুয়া দীর্ঘদিন ধরেই মোস্ট ওয়ান্টেড৷ ভারতের পাশাপাশি বাংলাদেশ সরকারের কাছেও এই জঙ্গি নেতা মোস্ট ওয়ান্টেড৷ বিএনপি-জামাত ইসলামি জোট সরকারের আমলে ২০০৪ সালে চট্টগ্রাম বন্দরে পাচার হচ্ছিল বিপুল আগ্নেয়াস্ত্র৷ সেই চালান ধরা পড়ে৷ ভারত বিরোধী সেই মামলায় পরেশ বড়ুয়া ও বিএনপি সরকারের তৎকালীন শীর্ষ মন্ত্রীদের ফাঁসির সাজা দেওয়া হয়েছে৷