ওয়াশিংটন: ফের উত্তপ্ত পরিস্থিতি৷ ইউক্রেন-রাশিয়ার মধ্যে চলা বিবাদে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে পূর্ব নির্ধারিত বৈঠক বাতিল করে দেন বলে জানা গিয়েছে৷

রবিবার ক্রিমিয়া উপদ্বীপে রুশ নৌসেনা ইউক্রেনের নৌসেনার জাহাজে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে এবং সেটিকে দখল করে নেয়৷ ট্রাম্প জানিয়েছেন G20 সম্মেলনে তিনি পুতিনের সঙ্গে দেখা করতে রাজি নন, কারণ দখল করা জাহাজ এবং তাদের নাবিকদের এখনও ফেরৎ পাঠানো হয়নি৷

এদিকে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেল এই ঘটনায় সম্পূর্ণ দায় রাশিয়ার বলে দাবি করেন৷ তিনি জানান, G20 সম্মেলনে এই ইস্যুকে পুতিনের সামনেই তুলে ধরা হবে৷ শুক্রবার আর্জেন্টিনাতে শুরু হতে চলেছে এই সম্মেলন৷

পড়ুন:

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট পেট্রো পোরোশেঙ্কো ন্যাটো-কে অনুরোধ জানান, ওই এলাকায় জাহাজ পাঠানোর জন্য৷ বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ইউক্রেনে সীমান্ত এলাকায় ৩০দিনের জন্য মার্শাল ল লাগু করা হয়েছে৷ বুধবার তিনি ঘোষণা করে জানিয়েছিলেন, ইউক্রেনে বসবাসকারী রাশিয়ানদের ব্যাংক থেকে টাকা তুলতে, বিদেশী মুদ্রা এক্সচেঞ্জ করতে এবং বিদেশযাত্রায় সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে৷

প্রসঙ্গত, গত রবিবার অবৈধভাবে রাশিয়ার জলসীমায় প্রবেশ করার অভিযোগে ইউক্রেনের ২টি গানবোট ও একটি টাগবোট আটক করে রাশিয়ার বর্ডার গার্ড। নাবিকদেরও আটক করা হয়। এরপরই পুতিনের সঙ্গে বৈঠক বাতিল করে দেন ট্রাম্প৷