মুম্বই: হিন্দুত্ববাদ থেকে সরছে না শিবসেনা। সাফ জানালেন শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে৷ বাস্তবিক রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট বিচার করে এক সময়ের প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেস-এনসিপির হাত ধরলেও নিজেদের হিন্দুত্ববাদী আদর্শ থেকে তাঁরা এক চুলও সরছেন না বলে জানালেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী তথা শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে৷

গত বছরই দীর্ঘদিনের সঙ্গী বিজেপির সঙ্গ ছেড়ে কংগ্রেসের হাত ধরেছে শিবসেনা। এনসিপিকে সঙ্গে নিয়ে মহারাষ্ট্রে সরকার গড়েছে শিবসেনা। তবুও হিন্দুত্ববাদী আদর্শ থেকে এতটুকু সরছে না সেনা। শিবসেনা প্রধান তথা মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের স্পষ্ট বার্তা, ‘আমাদের ভিতরের রং গেরুয়াই।’

মহারাষ্ট্রে বিধানসভা ভোটের পর একের পর এক নাটকের সাক্ষী থেকেছে মারাঠাভূম। প্রথমেই সংখ্যাগরিষ্ঠ বিধায়কের সমর্থন রয়েছে জানিয়ে রাজ্যপালের কাছে সরকার গড়ার দাবি জানান দেবেন্দ্র ফড়নবীশ। দীর্ঘ নাটক শেষে শেষমেশ সরকার গঠনে ব্যর্থ হয় বিজেপি। তারপর মাঠে নামেন রাজনীতির চাণক্য বলে পরিচিত এনসিপি সুপ্রিমো শরদ পাওয়ার। সব বিতর্ক সরিয়ে দফায় দফায় বৈঠক সারেন শিবসেনা ও কংগ্রেস নেতৃত্বের সঙ্গে।

মারাঠাভূমে সরকার গড়তে ময়দানে নামেন স্বয়ং সনিয়া গান্ধীও। দফায় দফায় দূত পাঠান মুম্বইয়ে। কীভাবে রাজনৈতিক মতাদর্শগত ফারাক ঘুচিয়ে জোট সরকার তৈরি হবে তা নিয়ে চলে বিস্তর আলোচনা। শেষে ঐক্যমত্যে পৌঁছনো সম্ভব হয়। বিজেপি-সঙ্গ ছাড়ে তার দীর্ঘদিনের সঙ্গী শিবসেনা। কংগ্রেস ও এনসিপিকে নিয়ে তৈরি হয় নয়া মহারাষ্ট্র সরকার। মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হন শিবসেনা প্রধান তথা বালাসাহেব ঠাকরের পুত্র উদ্ধব ঠাকরে।

বরাবরই হিন্দুত্ববাদী আদর্শ নিয়ে চলা শিবসেনা কীভাবে সেকুলারিমে বিশ্বাসী কংগ্রেস ও এনসিপির সঙ্গে পথ চলবে তা নিয়ে শুরু থেকেই রাজনৈতিক মহলে চলছিল জল্পনা। বিজেপি নেতাদের এখনও দাবি, মহারাষ্ট্রে সরকার বেশিদিন চালাতে পারবে না জোট। ক্রমেই নাকি জোটের অন্দরে মতাদর্শগত ফারাক বাড়বে। যদিও সেই সম্ভাবনাকে আমল দিতে নারাজ উদ্ধব ঠাকরে থেকে শুরু করে শরদ পাওয়ার ও সনিয়া গান্ধীরা। বরং জোটকে আরও বেশি শক্তিশালী করতে তৎপর তিন দলই।