পাটনাঃ এতদিন উঠতে বসতে মোদী সরকারকে তুলোধোনা করেছেন তিনি। মোদী-শাহ বিরোধী মন্তব্য তো বটেই মোদী বিরোধী সভায় যোগ দিতে কলকাতার ব্রিগেডে হাজির হয়ে গিয়েছেন নিমেষেই। বিষয়টা এমন পর্যায়ে গিয়ে দাঁড়িয়েছিল যে অনেকে তাঁকে তুলনা করছিলেন জয় প্রকাশ নারায়নের সঙ্গে। কিন্তু ভোটের মুখে রাম নাম থুরি “মোদী নাম ” শোনা গেল সেই শত্রুঘ্ন সিনহার মুখে।

রবিবার বিহারের বারাওনিতে পাটনা মেট্রো রেল প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর উন্মোচন করা হয়েছে। তাঁর জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বিহারের মুখ্য মন্ত্রী নীতিশ কুমারের প্রশংসা করে টুইটারে পোস্ট করেন শত্রুঘ্ন।
এই প্রকল্পের জন্য ব্যয় হতে চলেছে ৩০,০০০ কোটি টাকা।

সৌজন্য বজায় রেখে বুধবার শত্রুঘ্ন সিনহাকে ধন্যবাদ জানাল বিহার বিজেপি। সাথে সাথে এটাও বুঝিয়ে দিল তাঁর এই হঠাৎ প্রত্যাবর্তন কোন ভাবেই তাঁকে লোকসভা নির্বাচনে টিকিট পাইয়ে দেবেনা।

বিজেপি সংসদ হয়ে শত্রুঘ্ন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাজকর্ম নিয়ে ভরা মঞ্চে তাঁকে তুলধনা করেছেন। হঠাৎ ভোটের মুখে এসে তাঁর এই উল্টো সুরে গান গাওয়া যে ভোটের টিকিট হাতে পাওয়ার জন্য তা বুঝতে বোধ হয় আর বাকি থাকার কথা নয়।

” আমরা শত্রুঘ্ন সিনহাকে ধন্যবাদ জানাই তাঁর সত্য মন্তব্যের জন্য। তাঁর এই প্রশংসা বিশ্বব্যপী।” পাটনায় সাংবাদিকদের বললেন বিহারের বিজেপি সভাপতি নিত্যানন্দ রাই। ” বিজেপি হল সেই দল যারা ১৩০ কোটি মানুষের জন্য কথা বলে। কিন্তু পার্টির টিকিটের জন্য আর ইউ টার্ন তৈরি করা যাবে না।” একথাও বলেন রাই।

শোনা যাচ্ছিলো, ৩ দশক ধরে বিজেপিতে থাকা পাটনা সহিবের সাংসদ শত্রুঘ্ন এবার অন্য দলের হয়ে টিকিট নিয়ে ভোটে দাঁড়াবেন। তাহলে হঠাৎ তাঁর এই মন বদল কেন?