নয়াদিল্লি: জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নির্মলা সীতারমনের আমেরিকায় যাওয়ার কথা ছিল৷ প্রস্তুতিও চলছিল ২ দেশের দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের৷ সেই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক স্থগিত করল খোদ আমেরিকা৷

বিদেশমন্ত্রক সূত্রে খবর,মার্কিন মুখ্যসচিব দিল্লিতে ফোন করে বৈঠক স্থগিতের কথা জানান৷ কথা ছিল আমেরিকা ও ভারতের মোট ৪ মন্ত্রীর একসঙ্গে বৈঠকে বসবেন৷ দুই দেশের বিদেশ ও প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বৈঠকে বসার কথা ছিল৷ সেই বহু প্রতিক্ষিত বৈঠক স্থগিত করল আমেরিকা৷ বৈঠক স্থগিতের কারণ জানায়নি আমেরিকা বলে জানাচ্ছে বিদেশমন্ত্রক৷

এই বৈঠকেই ইরান নিয়ে কথা বলার কথা ছিল৷ কারণ, ইরানকে কোনঠাসা করতে ফের টার্গেট ভারত-চিন৷ ইরান থেকে আর তেল আমদানি নয়, দুই রাষ্ট্রকে জানাল আমেরিকা৷ ভারতে তেল সরবরাহে ইরান তৃতীয় দেশ৷ তেল রপ্তানিতে প্রথম ইরাক, দ্বিতীয় সৌদি আরব৷ ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে ১০ মাসে মোট ১৮.৪ মিলিয়ন টন তেল আমদানি করেছে ভারত৷ গোটা বিষয়ে ভারতের কী পদক্ষেপ, তা জানা না গেলেও বিষয়টি ওয়াশিংটনে তুলবে ভারত বলে জানা যায়৷ পরের সপ্তাহেই আমেরিকা সফরে যাওয়ার কথা ছিল বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমনের৷ বৈঠকে উঠত এই ইরান প্রসঙ্গ৷

৭ নভেম্বরের মধ্যে ইরানের থেকে তেল আমদানি বন্ধ করতে হবে৷ ভারত সহ বেশ কয়কেটি দেশকে তা জানিয়েছে আমেরিকা৷ ইরানকে বয়কট না করলে আমেরিকা সেই দেশকে বয়কট করবে বলে জানিয়েছে৷ এই পরিস্থিতিতে আমেরিকার সঙ্গে ভারতের বৈঠক যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ছিল৷ চার মন্ত্রীর বৈঠকের সুযোগ পরবর্তীকালে আসবে কি না, তাও জানা নেই৷ তবে আপাতত বৈঠক বাতিল হওয়ায় ব্যবসায়িক চাপে থাকবে ভারত বলে মনে করা হচ্ছে৷ তাই,জুলাইয়ে আমেরিকার সঙ্গে ভারতের বৈঠক যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ছিল৷

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।