স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: হাওরার সালকিয়ার পর ফের চোর সন্দেহে গণপিটুনির অভিযোগ উঠল মালদহ জেলার বিরুদ্ধে। জানা গিয়েছে, কাজ সেরে বাড়ি ফেরার পথে মালদহ মেডিকেল কলেজের সামনে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক লাগোয়া এলাকায় চোর সন্দেহে গণপিটুনির শিকার হয় দুই যুবক।

পুলিশ জানিয়েছে, গণপিটুনিতে আহত ওই দুই যুবকের নাম, হাইউল শেখ এবং সালাম শেখ। দুজনেরই বাড়ি মালদহ জেলার কালিয়াচক থানার সুজাপুরে। এদিকে দিনদুপুরে চোর সন্দেহে গণপিটুনির ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ায় মালদহ মেডিকেল কলেজের সামনে। জানা গিয়েছে, গণপিটুনির ঘটনায় উত্তেজিত হয়ে পড়ে স্থানীয় জনতা।

ঘটনাস্থলে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ গেলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে বলে জানা গিয়েছে। এছাড়াও স্থানীয় কিছু মানুষ এবং পুলিশের সহযোগিতায় আহত ওই দুই যুবককে চিকিৎসার জন্য ভরতি করা হয় মালদহ মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে। বর্তমানে ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন রয়েছে আহতেরা।

ইংরেজবাজার থানার পুলিশ জানিয়েছে, আহত হাইউল শেখ এবং সালাম শেখ রবিবার দিন মালদহ শহরে কাজ করতে এসেছিল। সূত্রের খবর, কাজ সেরে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে সুজাপুরের উদ্দেশ্যে গাড়ি ধরার জন্য জাতীয় সড়কের উপর দাঁড়িয়ে ছিল তাঁরা। আর সেইসময় হঠাৎ উন্মুক্ত জনতা তাদের দুইজনকে চোর সন্দেহে করে গণধোলাই দিতে শুরু করে।

পরে স্থানীয় কিছু মানুষ এবং পুলিশের তৎপরতায় তাঁদেরকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য পাঠিয়ে দেওয়া হয় মালদহ মেডিকেল কলেজে। যদিও এই বিষয়ে পুলিশের কাছে এখনও পর্যন্ত কোনও অভিযোগ জমা পড়েনি। গোটা ঘটনাটি খতিয়ে দেখে তদন্ত শুরু করেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ।