কলকাতা: বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেল দুটি লোকাল ট্রেন। পয়েন্টের গোলোযোগের কারণে দুটি ট্রেন মুখোমুখি চলে আসে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যে সাড়ে সাতটা নাগাদ দমদম স্টেশনের কাছে ৪ নং প্ল্যাটফর্মে এই ঘটনা ঘটে। একই লাইনে চলে আসে দুটি লোকাল ট্রেন৷ তার ফলে পুরোপুরি বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে শিয়ালদহ মেন শাখার লোকাল ও দুরপাল্লার ট্রেনগুলি৷চরম ভোগান্তির মুখে পড়েন বনগাঁ, রানাঘাট, হাসনাবাদ, কল্যাণী, ব্যারাকপুর সহ একাধিক শাখার অফিস ফেরত নিত্যযাত্রীরা৷ যাত্রীরা দমদম স্টেশনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে৷পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে লাঠিচার্জও করতে হয়৷ 

রেল আধিকারিকদের তরফে জানানো হয়েছে, সিগন্যালিংয়ের গোলযোগের কারণেই এই বিপত্তি৷ ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে রেলের ইঞ্জিনিয়াররা৷প্রসঙ্গত, বুধবারই  বামনগাছিতে অবরোধের জেরে ভোগান্তির মুখে পড়তে হয় শিয়ালদহ শাখার নিত্যযাত্রীদের৷ তারপরই আবার আজ এই ঘটনা৷ রেলের যাত্রী পরিষেবা নিয়ে ক্রমেই ক্ষোভ বাড়ছে রেলযাত্রীদের মধ্যে৷

 

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।