প্রতীকী ছবি

তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া : ভিন রাজ্যে লরি ভর্তি আলু নিয়ে যাওয়ার আগেই আটকে দিল পুলিশ। বাঁকুড়ার কোতুলপুরের ঘটনা।

জানা গিয়েছে, রবিবার রাতে দু’লরি আলু আসাম নিয়ে যাওয়ার পথে কোতুলপুর থানার পুলিশ স্থানীয় চেক পোষ্টে আটক করে। বিষ্ণুপুর-ময়নাপুর থেকে আসামে আলু নিয়ে যাওয়ার পথে ‘আটক হওয়া’ লরি দু’টির চালক-খালাসিরা কি কারণে তাদের আটক করেছে বলে জানেন না বলেই স্পষ্টত জানিয়েছেন।

ভিন রাজ্যে আলু রফতানি বন্ধের বিষয়ে এখনও পর্যন্ত সরকারি নিষেধাজ্ঞা নেই বলেই খবর। তারপরেও আসামগামী ঐ আলু ভর্তি দু’টি লরি পুলিশের আটক করা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

বাঁকুড়া জেলা আলু ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক দিলীপ ঘোষ বলেন, ভিন রাজ্যে আলু রফতানি নিয়ে সরকারি নির্দেশিকা আমাদের কাছে স্পষ্ট নয়। একই কথা বলেন, পশ্চিমবঙ্গ প্রগতিশীল আলু ব্যবসায়ী সমিতির বাঁকুড়া জেলা কমিটির উপদেষ্টা বিভাষ দে। তিনি বলেন, সরকারী নির্দেশিকা হাতে পাইনি। তবে বিভিন্ন নাকা চেকিং পুলিশ আলু বোঝাই লরি আটক করে চালক-খালাসিদের হয়রানি করছে। এই অবস্থা থেকে মুক্তির দাবি তিনি জানান।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।