বহরমপুর: অবশেষে বিজিবি মুক্তি দিল দুই ভারতীয় কৃষককে। সীমান্তের জিরো লাইনে এসে দু জনকেই বিএসএফের হাতে তুলে দিয়েছে বাংলাদেশ সীমান্ত রক্ষীরা। মুর্শিদাবাদের এই দুই কৃষককের বিরুদ্ধে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের অভিযোগ আনা হয়েছিল।

জেলার জলঙ্গীর বাসিন্দা দুই কৃষকের নাম নয়ন শেখ ও সাইদুল ইসলাম। গত বৃহষ্পতিবার দুপুরে মুর্শিদাবাদের বামনাবাদে ভারতীয় ভূখণ্ডে কৃষিকাজ করার সময় তাদের আটক করে বিজিবি। দু’দিন ধরে সীমান্তে উত্তেজনা ছড়ায়।

শুক্রবার দিনভর বিএসএফ এবং বিজিবির মধ্যে দফায় দফায় বৈঠক হয়। অপহৃত কৃষকদের ফিরিয়ে আনতে তাদের পরিবারের তরফে জেলা প্রশাসনের কাছে আবেদন করা হয়েছিল। টানা বৈঠকের পর ছাড়া পেয়েছেন নয়ন শেখ ও সাইদুল।

বৈঠকের পর বাংলাদেশ থেকে আসা তিন অনুপ্রবেশকারীকে ছেড়ে দিয়েছে বিএসএফ। তাদের সীমান্তের ওপারে রাজশাহীতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলেই খবর।

এদিকে বিজিবি ছেড়ে দেওয়ার পর নয়ন শেখ ও সাইদুল কে গ্রহণ করে বিএসএফ। তারপর তাদের পরিবারের কাছে পাঠানো হন। দুই কৃষক ঘরে ফিরে আসতেই গ্রাম জুড়ে স্বস্তি।

গত বছর অগস্ট মাসে কোচবিহারের কুচলিবাড়ি সীমান্তের কাছে ভারতীয় কৃষক জগবন্ধু রায়কে অপহরণ করেছিল বিজিবি।পরে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনির আলোচনায় জট কাটে। ফিরে আসেন ওই কৃষক। তার আগে সীমান্ত পেরিয়ে দুই বাংলাদেশির অনুপ্রবেশ আটকেছিল বিএসএফ।

সম্প্রতি বাংলাদেশের দিক থেকে বেশ কয়েকবার অনুপ্রবেশ আটকে দেয় বিএসএফ। গুলিও চালায়। বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষীদের অভিযোগ, বিনা প্ররোচনায় গুলি চালিয়েছিল বিএসএফ। যদিও বিএসএফের দাবি, যে ভাবেই হোক অনুপ্রবেশ বন্ধ করা হবে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ