টোকিও: পর পর দুটি ভূমিকম্প৷ শুক্রবার সকালেই জোড়া ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল জাপান৷ রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৫.৬ ও ৬.৩৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্বিক সংস্থা ইউএসজিএস জানিয়েছে দক্ষিণ জাপানের উপকূল বরাবর এই কম্পন অনুভূত হয়৷

ভূস্তর থেকে ৩৫ কিমি নীচে ছিল কম্পনের উৎস৷ বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ও শুক্রবার সকাল পৌনে আটটা নাগাদ এই জোড়া ভূমিকম্প অনুভূত হয়৷ জাপানের মিয়াজাকি-শি শহর থেকে ৪৪ কিমি দক্ষিণ পূর্বে ভূমিকম্পের উৎসস্থল ছিল৷ সেখানেই দ্বিতীয় ভূমিকম্পটি হয়৷

তবে কোনও সুনামি সতর্কতা জারি করা হয় নি৷ পরের ভূমিকম্পটি মাটি থেকে ২৪ কিমি গভীরে হয়৷ তবে সেভাবে কোনও ক্ষয়ক্ষতি বা প্রাণহানির খবর নেই বলে জানা গিয়েছে৷

আরও পড়ুন : অজ্ঞাতপরিচয় আততায়ীর হাতে লণ্ডনে খুন ভারতীয় মুসলিম যুবক

মে মাসের প্রথম সপ্তাহেই শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে জাপান৷ রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৫.৮। জাপানের হোকাইদোর দ্বীপে আঘাত হানে শক্তিশালী এই ভূমিকম্প। তবে এই ভূমিকম্পের পর দেশে এখনও পর্যন্ত কোনও সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়নি৷

তবে তীব্র কম্পনে প্রবল আতঙ্ক তৈরি হয় সে দেশের মানুষের মধ্যে। হঠাত কম্পনে রাস্তায় নেমে আসেন বহু মানুষ। মার্কিন ভূতাত্ত্বিক সংস্থা জানায়, হোকাইদোর উত্তরাঞ্চলীয় দ্বীপে উৎপত্তি হওয়া এই ভূমিকম্প আঘাত হানে৷ এর কেন্দ্র ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ৫৯ কিলোমিটার গভীরে। ফলে বেশ কম্পন অনুভূত করা যায়৷ এই কম্পনের ফলে মার্কিন ভূতাত্ত্বিক সংস্থা এবং প্রশান্ত মহাসাগরীয় সুনামি সতর্কতা কেন্দ্র কোনও সুনামি সতর্কতা জারি করেনি৷