বর্ধমান: শুক্রবার বর্ধমানের খণ্ডঘোষে ভোট পরবর্তী হিংসার বলি হয়েছিলেন দুই সিপিএম কর্মী৷ খণ্ডঘোষে দুই সিপিএম কর্মী খুনের ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে দুই তৃণমূল ও এক সিপিএম কর্মীকে গ্রেফতার করল পুলিশ৷ পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতদের নাম ওমর আলি, শুকুর আলি মণ্ডল,শেখ ইদ্রিশ৷ শুক্রবার সকালে এই তিন অভিযুক্তকে খণ্ডঘোষ এলাকা থেকেই গ্রেফতার করে পুলিশ৷

বৃহস্পতিবার বর্ধমানে ভোট পরবর্তী হিংসার বলি দুই সিপিএম কর্মী৷ খণ্ডঘোষে তৃণমূলের আক্রমণে এক পোলিং এজেন্ট সহ মৃত্যু হয় দুই সিপিএম কর্মীর৷ ভোট-পর্ব মিটতেই খণ্ডঘোষের লোধনা এলাকায় তৃণমূল-আশ্রিত দুষ্কৃতীরা বোমাবাজি শুরু করে বলে অভিযোগ ওঠে৷ এরপর ধারাল অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয় সিপিএমের এজেন্ট ফজল হক ও অন্য এক পোলিং এজেন্টের বাবা দুখীরাম ডালকে৷ গুরুতর আহত অবস্থায় ওই দুই সিপিএম কর্মীকে বৃহস্পতিবার রাতে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ রাতেই হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁদের৷ এই ঘটনায় তৃণমূলকে দায়ী করেছে বামেরা৷ যদিও এই অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে শাসকদল৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।