স্টাফ রিপোর্টার,কলকাতা: ফেক সরকারি ওয়েবসাইট তৈরি করে বেকার যুবকদের কাছ থেকে লক্ষাধিক টাকার প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার দুই যুবক৷ ধৃতদের কাছ থেকে পুলিশ উদ্ধার করে নগদ ৩২ হাজার টাকা৷ এছাড়া তাদের বিভিন্ন ব্যাংক একাউন্ট এর প্রায় ১০ লাখ টাকা ফ্রিজ করা হয়েছে, ল্যাপটপ মোবাইল এটিএম কার্ড ব্যাংক পাসবুকও উদ্ধার করা হয়েছে অভিযুক্তদের কাছ থেকে৷

২০১৭ সালের ২৬শে অক্টোবর ওয়েস্ট বেঙ্গল সেন্ট্রাল স্কুল কমিশনের সেক্রেটারি বিধান নগর সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ করে। সেই অভিযোগেই গ্রেফতার।

এই ওয়েবসাইট ছাড়াও প্রতারকরা বেশ কিছু ফেক ওয়েবসাইট খুলে প্রতারণা করে। সেগুলি হলো-www.westbengalssc.org.ইন; www.westbengalssc.নেট; www.westbengalssc.ইন ; www.westbengalssc.কো ; www.westbengalssc.কম ; www.westbengalresult.কম ; Westbengalresults.কম এই ফেক ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বেকার যুবকদের চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারিত করেছে বলে অভিযোগ।

ওয়েস্ট বেঙ্গল সেন্ট্রাল স্কুল কমিশনের ওয়েবসাইট ছাড়াও প্রতারকরা গ্রুপ ডি রিকুটমেন্ট বোর্ড এর ফেক সরকারি ওয়েবসাইটও তৈরি করা হয় বলে অভিযোগ৷ ২০১৭ সালের ৮ই নভেম্বর তারিখে গ্রুপ ডি রিকুটমেন্ট বোর্ড এর সেক্রেটারি বিধান নগর সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ করে।

পুলিশ সূত্রে খবর,এই ফেক সরকারি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রতারকরা বেকার যুবকদের প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণা করছিল৷ এরা ফেক নিয়োগ পত্র দিত৷ বেকার যুবকরা সেগুলো নিয়ে যখন তারা বোর্ডে যান তখন জানতে পারে নিয়োগ পত্রগুলো জাল৷ বিধান নগর সাইবার ক্রাইম থানা অভিযোগের ভিত্তিতে দুটি অভিযোগেরই তদন্ত শুরু করে৷ দুজন কে গতকাল পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুই জন যুবক কে গ্রেফতার করে৷ ধৃতরা হলো মহাম্মদ রেজাউল মির্জা (৩৪) শিক্ষাগত যোগ্যতা BA পাস। ফেক ওয়েবসাইট ডিজাইনার শেখ রামিজ (২৭) শিক্ষাগত যোগ্যতা B.COM৷

পুলিশ তদন্তে নেমে জানতে পারে বহু বেকার যুবক এই প্রতারণা চক্রের দ্বারা প্রতারিত হয়েছে।এবং ওয়েবসাইট ঘেটে জানতে পারে প্রায় এক কোটি টাকা মতো তারা তুলেছে। ধৃত দুই জন সরাসরি এই প্রতারণা চক্রের সাথে যুক্ত। এর সাথে আর আর কে কে জড়িত তা ক্ষতিয়ে দেখছে পুলিশ৷