প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, বারাসত: লকডাউন চলাকালীন সময়ে রেশনের চাল বেআইনী ভাবে পাচার করার চেষ্টা করছিল দুই দুষ্কৃতী । তৃণমূলের কাউন্সিলর ও পুলিশের তৎপরতায় ভেস্তে গেল তাদের পরিকল্পনা ।

এই ঘটনাটি ঘটেছে, উত্তর ২৪ পরগনার বারাসাত পুরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের বনমালীপুর এলাকায়। বারাসাত থানার পুলিশের তৎপরতায় এই ঘটনায় গ্রেফতার হয়েছে দুই চাল পাচারকারী। উদ্ধার করা হয়েছে বেআইনী ভাবে মজুত ২৭ বস্তা রেশনের চাল।

এদিন দুপুরে ২৭ বস্তা রেশনের চাল সমেত গাড়ির চালক ও বাড়ির মালিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বারাসাতের বনমালীপুর ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে একটি পরিত্যক্ত বেড়ার ঘরে মজুত ছিল ওই ২৭ বস্তা রেশনের চাল। মঙ্গলবার দুপুরে ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে একটি পুকুর পরিষ্কার করতে গিয়ে বিষয়টি নজরে আসে স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলরের ।

স্থানীয় কাউন্সিলর সমীর কুন্ডু সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি বারাসাত পুরসভার উপ পুরপ্রধানকে জানান l এরপরই খবর দেওয়া হয় বারাসাত থানার পুলিশকে। জানা গিয়েছে ওখানে বেশ কিছুদিন অমর দাস নামে এক ব্যক্তি টিনভাঙা, লোহা ভাঙ্গা ও কাগজের ব্যবসা করত।

তবে মঙ্গলবার পুকুর পরিষ্কার করতে গিয়ে কাউন্সিলারের নজরে আসে, অমর দাসের গোডাউনে ২৭ বস্তা রেশনের চাল বেআইনী ভাবে মজুত রয়েছে। স্থানীয় প্রশাসনকে খবর দেয় কাউন্সিলর , দ্রুত পুলিশ এসে ২৭ বস্তা চাল সহ একটি গাড়ি ও দুজনকে গ্রেফতার করে। পাশাপাশি সঠিক তদন্ত ও শাস্তির দাবি করেন কাউন্সিলর সমীর দাস ।

পুলিশ সূত্রে খবর, ছোট জাগুলিয়া এসএস ঘোষ এন্টারপ্রাইজ রেশন শপ এর এই চাল অবৈধভাবে মজুত করা হয়েছিল । গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে বারাসাত থানার পুলিশ ।