স্টাফ রিপোর্টার, হলদিয়া: সিভিল ইঞ্জিনিয়ার খুনে অবশেষে পুলিশের জালে ধরা পড়ল এক মহিলা সহ ২ জন। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতেরা হল ব্রজগোপাল সেণী এবং মল্লিকা দাস। তাদের বাড়ি পাঁশকুড়া এবং হলদিয়ায়। অভিযুক্তদের এদিন হলদিয়া আদালতে তোলা হলে তাদের ১২ দিনের পুলিশি হেপাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

প্রসঙ্গত, গত ১১ জানুয়ারি বাড়ি থেকে বেরিয়ে নিখোঁজ হয়ে যান পেশায় সিভিল ইঞ্জিনিয়ার মৃগাঙ্কশেখর মন্ডল (৪৯)। বারবার চেষ্টা করেও ফোনে তাঁকে না পেয়ে, গত ১৯ জানুয়ারি তমলুক থানায় মৃগাঙ্কশেখরের নামে নিখোঁজ ডায়েরি করেন তাঁর ভাই পিন্টু মণ্ডল। এই নিখোঁজ ডায়েরি করার আগে, গত ১৩ জানুয়ারি মহিষাদলের গেঁওখালি রূপনারায়ণ নদের পাড়ে নাটশাল রামকৃষ্ণ মিশন আশ্রমের কাছ থেকে, একটি আধপোড়া মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাচক্রে, সেই দেহটি মৃগাঙ্কশেখরের বলে শনাক্ত করেন তাঁর পরিবারের লোকেরা।

এদিকে,নৃশংস এই খুনের ঘটনার তদন্তে নেমে তমলুক মহকুমা থানার পুলিশ শনিবার সন্ধ্যায় ব্রজগোপাল এবং মল্লিকা দাসকে গ্রেফাতার করেন। প্রাথমিক তদন্তে নেমে পুলিশ আধিকারিক তন্ময় মুখোপাধ্যায় জানান, প্রণয় ঘটিত কারণে এই খুন হয়ে থাকতে পারে। যদিও ধৃতদের পুলিশি হেপাজতে নিয়ে জেরা করে মর্মান্তিক এই খুনের আসল রহস্য উদঘাটনে নেমেছে পুলিশ।