কলকাতা: এখন বাঙালির পুজো শুরু হয়ে যায় মহালয়া থেকেই। আর পুজোর প্রস্তুতি চলতে থাকে মাস দু-এক আগে থেকেই। পুজোয় কোথায় ঘুরবেন, সপ্তমীতে দক্ষিণ নাকি অষ্টমীতে উত্তর কলকাতা, কোন দিন মেনুতে কী খাবার, কী পোশাক সব নিয়েই চলতে থাকে ব্যাপক তোড়জোর। আর পোশাকের জন্য নজর রাখতে হয় ফ্যাশনে কী কী ইন রয়েছে। আবার অনেকেই ট্রেন্ডের তোয়াক্কা না করে নিজের স্টাইলে পুজো মণ্ডপে নজর কাড়েন। অনেকে আবার সেলেবদের ওয়ার্ড্রোবে সারা বছর চোখ রাখেন পুজোর কটাদিন স্পটলাইটে থাকার জন্য।

দেখে নেওয়া যাক এবার পুজোয় কোন কোন বাংলা তারকার ওয়ার্ড্রোব ফলো করলে, আপনিই পুজো মণ্ডপের শো-স্টপার হয়ে উঠতে পারেন-

১) স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়- ফ্যাশন নিয়ে কথা হচ্ছে আর সেখানে স্বস্তিকা থাকবেন না, তা কী ভাবে। যে কোনও রং বা যে কোনও পোশাকেই বাজিমাৎ করতে পারেন তিনি। এবারে অনায়াসে স্বস্তিকার সাজকে অনুকরণ করতে পারেন। সাবেকিয়ানা আর ট্রেন্ড মেশাতে গেলে আপনিও স্বস্তিকার মতো শাড়ির সঙ্গে এমন এক্সপেরিমেন্টার ব্লাউজ পরতে পারেন। আর একটু বেশিই সাহসি হলে এবার স্বস্তিাকার মতো চুল কেটে নিতে পারেন। কটন ড্রেস বা কুর্তি পরেও কী ভাবে ফ্যাশনিস্তা হওয়া যায় তা স্বস্তিকার সোশ্যাল মিডিয়া দেখলেই বোঝা হয়।

২) শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়- এথনিক হোক বা পশ্চিমী পোশাক, সব কিছুতেই মানানসই শুভশ্রী। পোশাক অনুযায়ী, চুল ও মেক আপেও নজর কাড়েন তিনি। ইন্দো ওয়েস্টার্ন পোশাক যাঁরা পরেন তাঁরা শুভশ্রীর বাঁদিকের লুকটি ট্রাই করে দেখতে পারেন। আর যাঁরা অষ্টমীর সন্ধেয় একেবারে সাবেকি সাজতে পছন্দ করেন তাঁরা এভাবেই শাড়ি ও গয়না পরতে পারেন। আর পশ্চিমী পোশাকের সঙ্গে এমনই সফট কার্লস করে দেখতে পারেন।

৩) সোহিনী সরকার- অভিনয়ে তিনি বার বার মুগ্ধ করেছেন। ফ্যাশনেও তিনি পিছিয়ে নিন। আপনিও সোহিনীর মতো একটি খাদি ড্রেসের সঙ্গে এমন স্কার্ফ নিতে পারেন। সাদা ঢাকাইয়ের সঙ্গে কালো ব্লাউজ। খোঁপায় ফুল, কানে ও হাতে নজর কাড়া গয়না। এমন ভাবে পুজো মণ্ডপে গেলে স্পটলাইটে আপনিই।

৪) কোয়েল মল্লিক- এবার পুজোয় মুক্তি পাচ্ছে মিতিন মাসি। তাই মিতিন মাসির মতোই শাড়ি বা কুর্তার সঙ্গে এমন একটি চশমা পরতে পারেন। ভিড়ের মাঝে চোখে পড়বেন। এছাড়া অষ্টমীতে অঞ্জলি দেওয়ার সময়ে লাল শাড়িতে এমন মিষ্টি সাজলেও পুজোর র‍্যাম্প মাতাতে পারেন আপনি।

৫) রুক্মিণী মৈত্র- হালকা সাজেও কীভাবে ক্লাসি লুকে পুজো মণ্ডপ মাতানো যায়, তা জানতে হলে রুক্মিণী মৈত্রকে অনুকরণ করতে হবে। নবমীর রাতে রুক্মিণীর এই সাজ ফলো করতে পারেন। পশ্চিমী পোশাকে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করলে এই প্যাস্টেল রঙা ওয়ান শোলডার জাম্পস্যুট পরতে পারেন। মেক আপ থাকবে এমনই সামান্য।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ