তিরুঅনন্তপুরম: ফের শবরীমালা ইস্যু৷ ফের উত্তপ্ত কেরল৷ এরই মাঝে সমাজকর্মী ত্রুপ্তি দেশাইকে নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্ক ছড়ালেন কেরলের সিপিআই মন্ত্রী ভি এস সুনীল কুমার৷ এদিকে, শবরীমালা মন্দিরে প্রবেশ করার সংকল্প নিয়ে শুক্রবার সকালে কোচি বিমানবন্দরে পা রাখেন ত্রুপ্তি৷

তবে বিমানবন্দর থেকে বের হতে দেওয়া হয়নি তাঁকে৷ বিমানবন্দরেই আটকে দেওয়া হয়৷ সেখানেই বসে পড়ে ধরণা অবস্থান শুরু করেন ওই সমাজকর্মী৷ ত্রুপ্তি দেশাইয়ের এই আচরণকেই কটাক্ষ করে তাঁকে আরএসএস কর্মী বলে মন্তব্য করে বসেন কেরলের ওই মন্ত্রী৷ তাঁর মতে ত্রুপ্তি দেশাইকে নিজেদের রাজনৈতিক স্বার্থ সিদ্ধির জন্য ব্যবহার করছে বিজেপি৷ ভগবান আয়াপ্পাকে নিয়ে বিজেপি ও আরএসএস রাজনীতি করছে৷

ফাইল ছবি

এদিকে, শুক্রবার ভোর সাড়ে চারটে নাগাদ সমাজকর্মী দেশাই কোচি বিমানবন্দরে পা রাখেন৷ তাঁর কর্মসূচি ছিল শবরীমালা মন্দিরে প্রবেশ করা৷ তবে বলাই বাহুল্য, তাঁর সেই আশা এদিনও পূর্ণ হয়নি৷ তবে এই সফরে নিজের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে পারে এমনই আশঙ্কা করেছিলেন ত্রুপ্তি৷ কেরলের মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখে সেই আশংকার কথা জানিয়ে ছিলেন তিনি৷ তবে কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি বলে ত্রুপ্তির অভিযোগ৷

উল্লেখ্য, শনিবার খুলে যাচ্ছে ভগবান আয়াপ্পার মন্দির৷ মাদালা-মক্কারাভিলাকু উৎসব উপলক্ষ্যে ২ মাস খোলা থাকবে মন্দির৷ তাই তার আগে, শুক্রবার মন্দিরে প্রবেশের চেষ্টা করবেন বলে জানিয়েছিলেন এই সমাজকর্মী৷

আরও পড়ুন : বিজেপির রথের বদলে মমতার একতা যাত্রার কর্মসূচি

তবে ত্রুপ্তির এই কর্মসূচির কড়া নিন্দা করেছেন কেরলের ওই মন্ত্রী৷ তিনি বলেন ত্রুপ্তি পুনে থেকে শবরীমালার উদ্দ্যেশ্যে যাত্রা শুরু করেছিলেন৷ তাঁকে সেখানেই পুলিশ দিয়ে আটকে দেওয়া উচিত ছিল৷ কোচি অবধি আসলেন কীকরে তিনি?

তবে মন্ত্রীর এই বক্তব্যের জবাব দিয়েছেন সমাজকর্মী দেশাই৷ তিনি বলেন “কোনও রাজনৈতিক তকমা দিয়ে আমাকে লাভ নেই৷ কারণ কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আমি যুক্ত নন৷ রাজনীতিতে আমার কোনও আগ্রহ নেই৷ বিজেপি ও আরএসএস আমাদের বিরোধিতাই করছে৷ তাহলে কীকরে আমি সেই দলের সঙ্গে যুক্ত হলাম?”