ওয়াশিংটন: পৃথিবীতে করোনা পরীক্ষার সবচেয়ে বড় কর্মসূচি আমেরিকার। যা রাশিয়া, চিন, ভারত, ব্রাজিলের মতন বড় দেশের তুলনায় অনেক ভালো, আমেরিকার মৃত্যুর হার সম্পর্কে বলতে গিয়ে এমন তথ্যই দিয়েছেণ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে তিনি এও জানিয়েছেন চিন গোটা বিশ্বের সঙ্গে যা করেছে তা কারোর ভুলে যাওয়া উচিত নয়।

তিনি জানিয়েছেন, “আমি মনে করি চিন যা চেয়েছে তাই করেছে। চায়না প্লেগ যাকে চায়না ভাইরাসও বলা যায়। যে নামে ইচ্ছা সেই নামে ডাকা যায়। এঁদের আলাদা আলাদা ২০টি নাম আছে। চিন যা করেছে পৃথিবীর সঙ্গে তাঁ কখনও ভূলে যাওয়া উচিত নয়”।

তবে এও জানানো হয়েছে, চলতি বছরের শুরুর দিকে আমেরিকা-চিন বাণিজ্য চুক্তি হয়েছিল তা একইরকম আছে। করোনা নিয়ে আমেরিকার কাজে ভীষণ খুশি প্রেসিডেন্ট এমনটাও বারবার জানিয়েছেন।

হোয়াইট হাউসে ট্রাম্প জানিয়েছেন, ‘পৃথিবীতে আমেরিকা করোনায় মৃত্যুর হার অন্যতমভাবে সবচেয়ে কম’। এখনও অবধি ৩৪ লাখের বেশি মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, ১ লাখ ৩৭ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। যা সব দেশের সব সংখ্যার তুলনায় অনেক কম।

ট্রাম্প মনে করেন, যেহেতু অনেক বেশি পরীক্ষা করা হচ্ছে তাই অনেক বেশি অনেক বেশি পজিটিভ ঘটনা সামনে আসছে। এ বিষয়ে ট্রাম্প জানিয়েছেন, “আমরা সকলের থেকে সবচেয়ে বেশি পরীক্ষা করে থাকি। বেশি আক্রান্তের সংখ্যা সামনে আসছে মানেই বেশি পরীক্ষা করা হচ্ছে।

মোট সংখ্যা মিলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লক্ষ ৩৬ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। এছাড়া শেষ ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ৪১১ জনের। যার ফলে মোট মৃত্যু হয়েছে ১ লক্ষ ৩৫ হাজার ৫৮২ জনের।

উল্লেখ্য, আমেরিকায় কিছুটা কমের দিকে যাচ্ছিল করোনা। বিশেষ করে ক্যালিফোর্নিয়ায় দক্ষিণে বিস্তৃত সান বেল্টে ফের করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে শুরু করেছে। সূত্রের খবর, এরফলে ফের লকডাউন সম্পর্কিত ভাবনা চিন্তাও শুরু করেছে বেশ কয়েকটি রাজ্য।

অন্যদিকে হু এর তরফে সতর্কবার্তা হিসেবে বলা হয়েছে, করোনা পরিস্থিতি দিনে দিনে আরও খারাপ থেকে খারাপতর হতে পারে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আশঙ্কা দেশগুলি যদি স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন না করে তবে বিশ্বজুড়ে এই করোনা মহামারির অবস্থা আরও খারাপ হয়ে পড়তে পারে।

হু-এর প্রধান টেড্রোস অ্যাধনম জেনেভায় একটি ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে জানিয়েছে, অনেক দেশই ভুল পথে এগিয়ে চলেছে, তার ফলে বিশ্বের মানুষের কাছে আজও ভাইরাস রয়েছে জনসাধারণের পয়লা নম্বরের শত্রু।

রয়টার্সের একটি সমীক্ষা বলছে, করোনা সংক্রমণে সারা বিশ্বে আক্রান্ত প্রায় ১৩ মিলিয়নের বেশি মানুষ। মৃত্যু হয়েছে ৫ লক্ষের বেশি মানুষের।

এই মুহূর্তে করোনায় সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতিতে রয়েছে আমেরিকা ও ব্রাজিল। এরপরেই আক্রান্তের বিচারে তালিকায় রয়েছে ভারতের নাম। মৃতের পরিসংখ্যানে আবার ইতালিকে ছাপিয়ে চতুর্থ স্থান দখল করেছে মেক্সিকো।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ