ওয়াশিংটন: আমেরিকার বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কার্যকলাপ দেখে ইতালির ফ্যাসিস্ট নেতা বেনিতো মুসোলিনির কথা মনে পড়ছে বলে মন্তব্য করেছেন ইউরোপীয় ইউনিয়ন বা ইইউ’তে নিযুক্ত প্রাক্তন মার্কিন রাষ্ট্রদূত অ্যান্থনি গার্ডনার। পলিটিকো ম্যাগাজিনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এমন মন্তব্য করেন। ২০১৪ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ইইউতে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব সামলে ছিলেন তিনি।

তার অভিমত, ট্রাম্পের কথাবার্তা ও আচরণে ইতালির ফ্যাসিবাদী নেতা এবং একনায়ক মুসোলিনির সঙ্গে মিল পাওয়া যাচ্ছে। এমনকি ট্রাম্পের বহু বক্তব্য মুসোলিনির সঙ্গে মিলে যাচ্ছে বলেও গার্ডনার মন্তব্য করেছেন।

ইতালিও বংশোদ্ভূত এই মার্কিন কূটনীতিকের বক্তব্য, “আমি গত কয়েক বছর ধরে বেনিতো মুসোলিনির সঙ্গে ডোনাল্ড ট্রাম্পের আচরণগত মিল দেখে হতবাক হয়েছি।” পাশাপাশি আমেরিকার সাম্প্রতিক বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের সময় ট্রাম্পের বেশ কিছু পদক্ষেপকে ‘হতাশাজনক’ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

তার বক্তব্য, মার্কিন প্রেসিডেন্ট শুধুমাত্র নিজের ভোট ব্যাংক ঠিক রাখার জন্য বর্ণবাদি মতবিরোধ উসকে দিচ্ছেন। বেনিতো মুসোলিনি ছিলেন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইতালির সর্বাধিনায়ক। ইতালির এই একনায়ক ১৯২২ সাল থেকে ১৯৪৩ সালে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার আগে পর্যন্ত সমগ্র রাষ্ট্রের ক্ষমতাধর ছিলেন।

তবে ক্ষমতাচ্যুত হলেও তিনি বেশ কিছুদিন হিটলারের ছত্রছায়ায় ছিলেন কারণ মুসলিম মুসোলিনি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলার সময় জার্মান একনায়ক এডল্‌ফ হিটলারের পরম বন্ধু হয়েছিলেন ও তাকে প্রভাবিত করেন। মুসোলিনি ১৯৪০ সালে অক্ষশক্তির পক্ষে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে যোগদান করেন । তিন বছর পর মিত্রবাহিনী ইতালী আক্রমণ করে। ১৯৪৫ সালে সুইজারল্যান্ডে পালাবার সময় তিনি কম্যুনিস্ট প্রতিরোধ বাহিনীর হাতে ধরা পড়েন এবং পরে তাকে হত্যা করা হয়।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ