নয়াদিল্লি: ফেব্রুয়ারিতেই ভারতে আসতে পারেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে ফেব্রুয়ারির শেষেই এদেশে আসতে পারেন তিনি। বিভিন্ন সূত্র মারফৎ এ খবর নিশ্চিত করা গিয়েছে।

সূত্র মারফৎ আরও জানা গিয়েছে, মোদীর সঙ্গে গত ৭ জানুয়ারির ফোনালাপের পরেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ট্রাম্প। ভারত-মার্কিন সম্পর্ক ক্রমশই সুদৃঢ় হচ্ছে। তবে সেই সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় করার লক্ষ্যেই এদেশে আসতে চলেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্প এবং মোদী দীর্ঘদিন ধরে মুলতুবি থাকা একটি চুক্তিও স্বাক্ষরিত করতে পারেন বলে জানা গিয়েছে।

গত বছরে ট্রাম্পের ভারতে আসার কথা ছিল। কিন্তু সেই সময় সে প্রস্তাব নাকচ করে দেয় হোয়াইট হাউস। তবে এবার মার্কিন রাষ্ট্রপতি যে ভারতে আসছেন তা একপ্রকার নিশ্চিত। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আনা ইমপিচমেন্ট প্রস্তাব বিষয়ে মার্কিন সিনেটে ইমপিচমেন্ট কবে অনুষ্ঠিত হবে তার ওপর নির্ভর করেই মার্কিন প্রেসিডেন্টের ভারত সফরের দিন স্থির করা হবে।

উল্লেখ্য, এই মুহূর্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সু-সম্পর্ক রয়েছে ভারতের। মোদী বেশ কয়েকবার মার্কিন সফরও করেছেন। এবার প্রথমবারের জন্য ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারতে আসতে পারেন।

অন্যদিকে ইরান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ আবহে রীতিমতো চিন্তিত রয়েছে ভারতও। এর অন্যতম কারণ হল তেল। ভারত বিদেশ থেকে যে দেশগুলির কাছ থেকে তেল আমদানি করে তাঁর মধ্যে ইরান অন্যতম। অন্যদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গেও সুসম্পর্ক রয়েছে ভারতের। ফলে এই যুদ্ধ আবহে রীতিমতো ফাঁপরে পড়েছে ভারত। যদিও এখন পর্যন্ত কোনও পক্ষকে সমর্থন করে কিছু জানায়নি মোদী সরকার।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ