স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: অনির্দিষ্টকালের জন্য ট্রাক ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে ফেডারেশন অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রাক অপারেটরস এ্যাসোসিয়েশন৷ সোমবার সকাল থেকে রাজ্য জুড়ে পন্যবাহী ট্রাক চলাচল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে৷ পশ্চিমবঙ্গে রয়েছে ৭ লক্ষাধিক ট্রাক৷ এই পরিবহন ব্যবসায়ে যুক্ত রয়েছে রাজ্যের প্রায় এক কোটি মানুষ৷ দাবি সংগঠনের।

ফেডারেশন অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রাক অপারেটরস এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সুভাষ বোসের অভিযোগ, ট্রাকের উপর পুলিশের ও ডাক বাবুদের জুলুম দিন দিন বাড়ছে। পুলিশের চাহিদা মতো টাকা না দেওয়া হলে পুলিশ ইচ্ছাকৃতভাবে কেস দিয়ে জরিমানা আদায় করছে। এছাড়া নো এন্ট্রির নামে চলে পুলিশের অত্যাচার। এদের পাশাপাশি সেচ দফতর ও বি. এল. আরও – র জুলুম। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে পরিবহন টাস্কফোর্স গঠন হয়েছে ঠিকই কিন্তু কোনও কাজ এখনো করেনি।

সংগঠনের জয়েন্ট সেক্রেটারি প্রবীর চট্টোপাধ্যায় জানান, ৬ দফা দাবি নিয়ে এর আগে আমরা বহুবার পরিবহনমন্ত্রী ,মুখ্যমন্ত্রীকে জানিয়েছি৷ এমনকি রাজ্যপালকেও জানিয়েছি কিন্তু সমস্যার কোনও সমাধান হয়নি৷

ছয় দফা দাবি হল:

১) অবিলম্বে ভারত সরকারের মোটর ভেহিকলস এর নতুন অ্যাক্সেল লোড করতে হবে৷
২) পুলিশি অত্যাচার অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে৷ বিশেষ করে গ্রীন পুলিশ, ডাক বাবু, সিভিক পুলিশ,ও থানাগুলোকে৷
৩) ২০১৯ এর বাজেট অধিবেশনে ভারত সরকারের পেট্রোল ও ডিজেলের অতিরিক্ত শুল্ক প্রত্যাহার করে জি.এস.টি চালু করতে হবে৷
৪) লোডিং পয়েন্ট থেকে ওভারলোড বন্ধ করতে হবে৷
৫) কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতিবছর থার্ড পার্টি ইনসুরেন্স প্রিমিয়াম বৃদ্ধি করা বন্ধ করতে হবে৷
৬) আর.টি.ও পুলিশি ঝামেলা ও টাকা তোলা বন্ধ করতে হবে৷
পন্যবাহী ট্রাক ধর্মঘটের ফলে বাড়তে পারে খাদ্যদ্রব্যের নাম। বিশেষ করে পেঁয়াজ, মাছ, ডিম, কাঁচা সবজি ও অন্যান্য জিনিস। যে সমস্ত জিনিসপত্র পন্যবাহী ট্রাকে করে রপ্তানি হতো, সে সব জিনিসপত্রেরও দাম বেড়ে যেতে পারে।