ফাইল ছবি

আগরতলা: করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের ভূমিকার সমালোচনা করায় প্রকাশ্যে সংবাদ মাধ্যমকে হুমকি দেওয়ার পর আরও বিতর্কে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। বিজেপি আইপিএফটি জোট সরকারের প্রধানের বিরুদ্ধে এবার রাজ্যের সাংবাদিক মহল তীব্র অসন্তোষ জানাল।

দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সিপিআইএমের মানিক সরকার ও কংগ্রেসের সমীর রঞ্জন বর্মণ কড়া নিন্দা জানিয়েছেন। রাজ্যের আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতি ও সাংবাদিকদের উপর হামলার নিন্দা করে ২১ সেপ্টেম্বর ১২ ঘণ্টার বনধের ডাক দিয়েছে ত্রিপুরা প্রদেশ কংগ্রেস।

রবিবার আগরতলায় ত্রিপুরা অ্যাসেম্বলি অফ জার্নালিস্টের তরফে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের প্রবল সমালোচনা করা হয়। সাংবাদিক সম্মেলন থেকেই জানানো হয়, মুখ্যমন্ত্রী কে তিন দিনের মধ্যে তাঁর বক্তব্য প্রত্যাহার করতে হবে।

সাব্রুমে একটি সরকারি অনুষ্ঠান থেকে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব সরাসরি বলেন, রাজ্যে করোনা মোকাবিলা নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে লিখছে সংবাদ মাধ্যম। তিনি মাফ করবেন না।

মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পরপর কয়েকজন সাংবাদিক আক্রান্ত হন। রাজ্যের বহুল প্রচারিত সংবাদ পত্রের সাংবাদিক করোনা পরিস্থিতির বেহাল তথ্য ফেসবুক লাইভে তুলে ধরার পর আক্রান্ত হন। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁর চিকিৎসা হয় আগরতলায়।

সাংবাদিক সংগঠনের তরফে বলা হয়েছে, বিষয়টি কমনওয়েলথ হিউম্যান রাইটস ও এডিটরস গিল্ড সহ একাধিক আন্তর্জাতিক ও জাতীয় ফোরামে জানানো হচ্ছে।

রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে গত বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকেই বিরোধী সিপিআইএম বারবার অভিযোগ করেছে। অভিযোগ, বেলাগাম সন্ত্রাস চালাচ্ছে বিজেপি। টানা দু দশকের বাম আমলে এমন হয়নি বলে জানিয়েছেন বিরোধী নেতা মানিক সরকার। রাজ্যে নিকম্মার সরকার চলছে বলেই প্রকাশ্য জনসভায় তিনি সরকারকে কটাক্ষ করেছেন।

অপর বিরোধী দল কংগ্রেস সরাসরি বনধ ডাকল। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পীযুষকান্তি বিশ্বাস জানান, বাম সরকারের আমলে যেমন বিরোধিতা হয়েছে, তেমনই হবে বিজেপি জোট সরকারের আমলেও। বনধ সফল হবে।

এদিকে রাজ্যেের প্রাক্তন স্বাস্থ্যমন্ত্রী তথা হেভিওয়েট বিজেপি নেতা সুদীপ রায় বর্মণ সরকারের করোনা মোকাবিলা পরিকাঠামো নিয়ে পরপর তোপ দেগেই চলেছেন।

তাঁর ভূমিকায় সরকারের অন্দরমহলে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ক্রমে সুদীপবাবুর সঙ্গে দলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছে। কংগ্রেস ত্যাগী হয়ে তৃণমূল কংগ্রেস ঘুরে বিজেপিতে আসা সুদীপবাবু বারবার বিঁধছেন সরকারকে।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।