নয়াদিল্লি: গত বছরের শেষেই লোকসভায় পাস হয়েছে তিন তালাক বিরোধী বিল৷ আজ, মঙ্গলবার সেই বিল পেশ হতে চলেছে রাজ্যসভায়৷ কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ রাজ্যসভায় এই বিল পেশ করতে চলেছেন৷ রাজ্যসভায় এই বিল পাস হয়ে গেলে তা আইন হিসেবে কার্যকর হতে চলেছে৷ এই বিল পাস হওয়া নিয়ে আবারও কি বিজেপি-কংগ্রেস কোন্দল প্রকাশ্যে আসবে? সেই বিষয়টি নিয়েই চলছে এখন জল্পনা৷

সংসদের নিম্নকক্ষে বিজেপির সরকার সংখ্যাগরিষ্ঠ৷ ফলে সেখানে বিরোধীরা বাধা দিলেও বিল পাস আটকাতো না৷ কিন্তু কংগ্রেস-সহ অধিকাংশ বিরোধী দলগুলি এ নিয়ে ভোটাভুটিতে যায়নি৷ বরং ধ্বনিভোটে পাস হয়ে তিন তালাক বিরোধী বিল পাস হয়ে যায় লোকসভায়৷

লোকসভায় বিলের কয়েকটি সংস্থান নিয়ে আপত্তি করলেও কোনও ভোটাভুটির দাবি জানায়নি কংগ্রেস৷ বিজেডি, আরজেডি, সিপিএম এই বিলের বিরোধিতা করে৷ এমনকি এই বিতর্কে অংশ নেননি তৃণমূলও৷ তিনঘন্টা ধরে চলতে থাকা বিতর্কে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় মুখে কুলুপ এঁটে ছিলেন৷

রাজ্যসভার অঙ্ক যদিও সম্পূর্ণ ভিন্ন৷ সেখানে বিজেপি সংখ্যালঘু৷ ফলে তিন তালাক বিরোধী বিল পাস করাতে হলে কংগ্রেসের সহযোগিতা বিশেষ প্রয়োজন৷ সেক্ষেত্রে আজ রাজ্যসভায় বিল পাসে যদি কোনওরকম বাধা দেয় তাহলে বিল সিলেক্ট কমিটিতে কমিটিতে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে৷ আবার বিল পাস হওয়া নিয়ে কংগ্রেস বিরোধিতা নাও করতে পারে৷ রাহুলের সমর্থনে লোকসভায় বিল পাস করাতে সফল হয়েছেন মোদী৷ কিন্তু এবার রাজ্যসভায় কি পারবেন একইভাবে সফল হতে? অপেক্ষা আর কিছুক্ষণের৷

প্রসঙ্গত, এই বিল পাসের বিষয়ে সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, এই বিল শরিয়তের বিপক্ষে নয়৷ আদর্শ আচরণবিধিও স্থির করা হচ্ছে না এই বিলের মধ্য দিয়ে শুধুমাত্র সমাজে মুসলিম মহিলাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার চেষ্টা করছে কেন্দ্র৷