লন্ডন: তাঁর ব্যাট কথা বলছে৷ বাইশ গজে রীতিমত আগুন ধরাচ্ছে৷ ১০০ নয় ২০০ নয়, এক্কেবারে ট্রিপল সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের তাক লাগিয়ে দিচ্ছেন৷ তবু তিনি ব্রাত্য৷ কাউন্টিতে সারের হয়ে অপরাজিত ৩২৬ রান করার পরও কেভিন পিটারসেনকে শুনতে হচ্ছে ইংল্যান্ডের জাতীয় দলে তাঁর কোনও স্থান হবে না৷

২০১৩-১৪ সালে অ্যাসেজ সিরিজে পরাস্ত হওয়ার পরই জাতীয় দল থেকে বাদ পড়েছিলেন কেপি৷ ফের দলে ফিরতে মরিয়া ব্যাটসম্যান কাউন্টিকেই হাতিয়ার করেন৷ কিন্তু ব্যাট হাতে নিজেকে একাধিকবার প্রমাণ করেও লাভ হল না৷ সোমবার ইংল্যান্ড বোর্ডের ক্রিকেট ডিরেক্ট অ্যান্ড্রু স্ট্রস নাকি জানিয়ে দিয়েছেন, আসন্ন অ্যাসেজ তো নয়ই, আর কোনওদিনই ইংল্যান্ড দলে প্রত্যাবর্তন করতে পারবেন না কেপি৷ ওভালে লিসেস্টারশায়ারের বিরুদ্ধে ট্রিপল সেঞ্চুরি করেন তিনি৷ ৩৭৩ বলে ৩২৬ রানের চোখ ধাঁধানো ইনিংস সাজানো ছিল ৩৪টি চার ও ১৪টি ছয় দিয়ে৷ তারপরই স্ট্রস ও ইসিবি-র সিইও টম হ্যারিসনের সঙ্গে দেখা করেন পিটারসেন৷ তারপরই জানা যায়, তাঁকে দলে ফেরাতে আগ্রহী নন স্ট্রস৷

দক্ষিণ আফ্রিকা বংশোদ্ভূত ব্যাটসম্যানকে নিয়ে এমন সিদ্ধান্তে বেশ হতাশ তাঁর ভক্তরা৷ বিশেষজ্ঞমহল মনে করছে, এমন সিদ্ধান্ত ইংল্যান্ড ক্রিকেটের ক্ষতি করবে৷ যদিও কুকদের পাশে খেলার বিষয়ে এখনও আশাবাদী পিটারসেন৷ তিনি বলছেন, ‘সময় অনেককিছু করে দেখাতে পারে৷ স্ট্রস এসেছে৷ নতুন চেয়ারম্যানও (ইসিবি-তে) আসবে৷ নতুন কোচ দায়িত্ব নেবেন৷ আমাকে বলা হয়েছিল, জাতীয় দলে ফিরতে কাউন্টিতে ভালো পারফর্ম করতে হবে৷ আমার মনে হয়, আমি রান করছি৷ বিগ ব্যাশে ভালো খেলেছি৷ আইপিএল-কেও বাদ দিয়েছি৷ অর্থের জন্য নয়, শুধুমাত্র জাতীয় দলে কামব্যাক করার লক্ষ্য বাইশ গজে নামি৷ ইংল্যান্ড দলে নিজের জায়গা ফিরে পেতে চাই আমি৷ মনে হয়, আমি তার যোগ্যও৷’

Comments are closed.