স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: গতবছর ২১ জুলাইয়ের সমাবেশে ১০ লক্ষ্য লোকের ভিড় হবে বলে আগে থেকেই দাবি করেছিল তৃণমূল। কিন্তু এবার ভিড় নিয়ে তেমন তর্জন-গর্জন নেই ঘাসফুল শিবিরের। সূত্রের খবর, উত্তরবঙ্গ থেকে তেমন লোক হবে ধরে নিয়েই দক্ষিণবঙ্গকে ধর্মতলা ভরানোর টার্গেট দিচ্ছে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

২৬ বছর ধরে ২১ জুলাই পালন করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।ওই দিনটি শহিদ স্মরণ অনুষ্ঠান হলেও সেটা এখন কার্যত তৃণমূলের রাজনৈতিক ক্ষমতা প্রদর্শনের জায়গা। প্রতিবছর ভিড়ের নিজেদের রেকর্ড ভাঙাটাই তৃণমূলের লক্ষ্য থাকে। গতবারের ২১ জুলাইয়ের জনসভা অতীতের সমস্ত ভিড়ের রেকর্ডকে ছাপিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু এবার ছবিটা অন্যরকম। লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ১৮ টা আসন পাওয়ার পর এবছর ভিড় নিয়ে চিন্তিত তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

নেতৃত্বের একাংশের আশঙ্কা, লোকসভা ভোটে যে ভাবে উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের বিপর্যয় হয়েছে এবং বিজেপির উত্থান ঘটেছে, তাতে ওই এলাকা থেকে খুব বেশি সমর্থক ২১ জুলাইয়ের সমাবেশে যোগ দিতে আসবেন না। উল্লেখ্য, লোকসভা ভোটে দার্জিলিং থেকে মালদহ একটা আসনও পায়নি তৃণমূল।

জানা গিয়েছে, গতকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার তৃণমূল ভবনে কলকাতা ও তার পার্শবর্তী জেলাগুলিকে বৈঠকে ডেকেছিলেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সুব্রত বক্সী। সূত্রের খবর, উত্তরবঙ্গ থেকে যে সেরকম লোক এবার সত্যিই আসছে না সেই খবর তিনি পেয়ে গিয়েছেন। সেকারণে দক্ষিণবঙ্গ এই জেলাগুলিকে টার্গেট দিয়েছেন উত্তরবঙ্গের ভিড়ের ঘাটতি মেটানোর জন্য।

তবে তৃণমূলের একটা অংশের আশংকা, দক্ষিণবঙ্গের সব জেলা থেকেও অন্যান্যবারের মতো লোক এবার হবে না। বর্ধমান, মালদহ, বীরভূম, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, এই জেলাগুলি থেকে লোক টানা চাপ হবে। কলকাতা ও তার লাগোয়া জেলাগুলিই হয়তো মুখ রক্ষা করতে পারে।