স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: জেলা জুড়ে পালিত হল শহীদ ক্ষুদিরামের আত্মবলিদান দিবস। তমলুক, কাঁথি, হলদিয়ার পাশাপাশি মহিষাদলের তেরপেখ্যা স্টেট প্ল্যান প্রাথমিক বিদ্যালয়ের খুদে শিশুদের উদ্যোগে পালিত হয় এই দিনটি৷

আরও পড়ুন: ‘বাতেলা’ দিয়ে বাজার গরম করছে বিজেপি, মন্তব্য অধীরের

এদিন শ্রদ্ধা জানানোর পাশাপাশি সঙ্গীত, আবৃত্তি পরিবেশন ও অঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা সুচিত্রা পাত্র, নবনিতা কপাট, মহাশ্বেতা ঘোষ এবং স্কুলের অঙ্কন শিক্ষক বিশ্বনাথ গোস্বামী বিপ্লবী ক্ষুদিরামের আত্মজীবনী, আজকের দিনটির গুরুত্ব ও স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস খুদে ছাত্রদের কাছে তুলে ধরেন। স্বাধীনতার বিভিন্ন বিষয় চিত্রের মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীরা তাদের ভাবনা তুলে ধরে।

আরও পড়ুন: ‘অনুপ্রবেশকারীরা ভারতে থাকলে আরও ১০টা কাশ্মীর তৈরি হবে’

অন্যদিকে শহীদ বীর ক্ষুদিরাম বসুর আত্মবলিদান দিবস ১১ অগষ্টকেই স্মরণ করা হয়। আর এই আত্মবলিদান দিবসটি বিশেষ ভাবে পালন করল পূর্ব মেদিনীপুরের দেউলিয়া হীরারাম উচ্চ বিদ্যালয়। এদিন সকালে স্কুল চত্বরে ক্ষুদিরাম বসুর আবক্ষ মূর্তি উন্মোচন করা হয়। এই মূর্তিটির উদ্বোধন করেন অধ্যাপিকা মিরাতুন নাহার। এছাড়া এদিন বিদ্যালয়ের কয়েক’শো ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে চলে বিভিন্ন ধরনের দেশাত্মবোধক নাচ, গান।

আরও পড়ুন: অমিত শাহের কথা অক্ষরে অক্ষরে পালন, তৃণমূলের ব্যানার ঢাকলো কাপড়ে

সেই সঙ্গে চলে ক্ষুদিরামের আত্মজীবনী নিয়ে আলোচনা, স্লাইড শো ও কুইজ প্রতিযোগিতাও। এদিনের অনুষ্ঠানে মিরাতুন দেবী ছাত্রছাত্রীদের সমাজ গঠনে তাদের আগামী দিনের ভূমিকা ও ক্ষুদিরামের বর্তমান যুগে প্রাসঙ্গিকতা নিয়ে আলোচনা করেন। শুধু তাই নয়, এদিন দুঃস্থ দু’জন মেধাবী ছাত্রকে আর্থিক সাহায্য হাতে তুলে দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কবি আরণ্যক বসু, কবি মহুয়া সেন, অনুপ মান্না, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গৌরহরি পাল সহ বিশিষ্টরা।