স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: নো হেলমেট, নো পেট্রোলের পর কিছুদিন আগেই পদক্ষেপ নেওয়া হয় নো লাইসেন্স, নো বাইকের৷ এই পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিল রাজ্য সরকার৷ কিন্তু তারপরেও দুর্ঘটনা ঘটেই চলেছিল বলে অভিযোগ৷

তাই সোমবার জেলায় জেলায় পথ নিরাপত্তার সচেতন বার্তা প্রেরণ করা হয়৷ এই উদ্যোগ থেকে বাদ পড়েনি তমলুকও৷ এদিন মেদিনীপুরের নন্দকুমারে পথ নিরাপত্তা অনুষ্ঠানে এসে রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী আরও একবার জানালেন, ‘নো লাইসেন্স, নো বাইক’৷

আরও পড়ুন: লড়ছে মেডিক্যাল, কেটেও কাটল না জট

প্রসঙ্গত, পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ উদযাপন অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে এমনই বার্তা দেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী৷ আগে লাইসেন্স বানিয়ে বাইক চালানো শিখতে হবে৷ তারপর বাইক কিনে রাস্তায় বেরাতে পারবে। পথ দুর্ঘটনা এড়াতে রাজ্য জুড়ে পালিত হচ্ছে ‘পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ’।

সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ প্রকল্পের মধ্য দিয়ে এদিন পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নন্দকুমারে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়৷ সেই অনুষ্ঠানে পরিবহণ মন্ত্রীর পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী, জেলাশাসক রশ্মি কমল, পুলিশ সুপার ভি.সলেমন নেশাকুমার, সভাধিপতি মধুরিমা মণ্ডল, নন্দকুমারের বিধায়ক সুকুমার দে, ময়নার বিধায়ক সংগ্রাম দোলাই সহ অন্যান্যরা।

আরও পড়ুন: টেস্ট সিরিজে সচিনের বাজি কুলদীপ

আরও পড়ুন: সেবি নির্দেশিকায় সিএমডি পদ ভাঙতে হবে ২৯১টি কোম্পানিকে

এই মঞ্চ থেকেই মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী আরও বলেন, ‘‘পথ দুর্ঘটনা কমানোর জন্য একাধিক পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। জেলা প্রশাসন ও পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে সেই পরিকল্পনাগুলি বাস্তবায়িত করা হবে। ইতিমধ্যে জেলার বিভিন্ন জায়গায় পুলিশের নজরদারির জন্য সিসি টিভি লাগানো হয়েছে। গতি নিয়ন্ত্রণের উপরেও কড়া নজরদারির ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে অনেকেই তা মানছেন না। সেই বিষয়গুলিকে নিয়েও আমরা যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।’’ সেই সঙ্গে পথ নিরাপত্তা সচেতনতা অনুষ্ঠানে এসে অনেকের হাতে হেলমেটও তুলে দেন পরিবহণ মন্ত্রী৷

আরও পড়ুন: একমাস বেকার থাকলে পিএফের ৭৫% তুলে নেওয়ার সুযোগ

উল্লেখ্য, বর্তমানে মূলত ব্যস্ত রাস্তাগুলিতে দুর্ঘটনার প্রবণতা ক্রমশ বেড়ে চলেছে৷ নিয়মকে কার্যত বুড়ো আঙুল দেখিয়ে কেউ কেউ বিনা হেলমেট এমনকি বিনা লাইসেন্সেই গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে পড়েন৷ কখনও কখনও নির্দিষ্ট স্পিডের পরিবর্তে আরও দ্রুত গতিতে বাইক চালানোয় বিপদ একেবারে সামনে এসে হাজির হয়৷ আর তাতেই ঘটে বিপত্তি৷ এই বেপরোয়া যানবাহনের দৌরাত্ম্য কমাতেই রাজ্য জুড়ে পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ পালন করা হচ্ছে৷

আরও পড়ুন: অক্ষয়ের ‘তপন দাস’ হয়ে ওঠার গল্প দেখুন এই ভিডিওতে