নয়াদিল্লি: পয়লা ফেব্রুয়ারি সাধারণ বাজেট ৷ এখন আর আলাদা করে রেল বাজেট পেশ করা হয় না কারণ তা সাধারণ বাজেটের সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়া হয়েছে রেল বাজেটকে৷ তবে এটা ঘটনা এবার বাজেটের এক মাস আগেই বেড়ে গিয়েছে রেলের ভাড়া ৷

২০২০ সালের পয়লা জানুয়ারি মানে নতুন বছরের শুরুর দিনেই বেড়েছে রেল ভাড়া। দূরপাল্লার ট্রেনে প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া বৃদ্ধি হয়েছে। তবে লোকাল ট্রেনের ভাড়া বাড়েনি। ওই দিন থেকে বাতানুকূল কামরার সকল শ্রেণিতে গড়ে প্রতি কিলোমিটারে ৪ পয়সা ভাড়া বেড়েছে। অন্যদিকে দূরপাল্লার ট্রেনের সাধারণ শ্রেণিতে প্রতি কিলোমিটারে ২ পয়সা হারে ভাড়া বেড়েছে এবং অসংরক্ষিত কামরার জন্য প্রতি কিলোমিটারে ১ পয়সা হারে ভাড়া বেড়েছে।

এর আগে পাঁচ বছরে রেল কোনও ভাড়া বাড়ায়নি৷ বর্তমানে রেলের আর্থিক বেহাল দশা। ফলে রেলের ঘাটতি কমাতে দূরপাল্লার ট্রেনের যাত্রীভাড়া বাড়ানোর পথে হেঁটেছে মন্ত্রক। যদিও শেষমেশ এমন পদক্ষেপে আদৌ সমস্যা মিটবে কিনা তা নিয়ে সংশয়ে রয়েছে বিভিন্নমহল। এর আগে ২০১৪ সালে যাত্রীবাহী ট্রেনে১৪.২ শতাংশ হারে এবং পণ্যবাহী ট্রেনে ৬.৬ হারে ভাড়া বেড়েছিল৷

গত বছর ভোটে জিতে নরেন্দ্র মোদী ফের ক্ষমতায় ফেরার পর কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন সাধারণ বাজেট পেশ করেন ৷ সেদিনের সেই বাজেট প্রস্তাবে অবশ্য রেলের টিকিটের কোনও দাম বাড়ানো হয়নি। তবে আগামী দিনে আদর্শ ভাড়া প্রকল্প চালু করার কথা সেদিন ঘোষণা করেছিলেন অর্থমন্ত্রী। যারফলে অনেকেই আাঁচ পেয়েছিলেন, রেলের লোকসান কমাতে ভাড়া বাজারের উপরে ছাড়া হতে পারে।