মেমারী (পূর্ব বর্ধমান) :- অল্পের জন্য বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেল বর্ধমানের মেমারী থানার দেবীপুর রেলগেটে আটকে থাকা অসংখ্য মানুষ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার বিকালে রেলগেট খোলা থাকায় যথারীতি যানবাহন চলাচল করছিল। রেলগেট দিয়ে পার হচ্ছিল একটি যাত্রীবাহী ভলভো বাসও। সেই সময় হঠাতই ডাউন লাইনে চলে আসে মা তারা এক্সপ্রেস। খুব অল্পের জন্য প্রাণ বাঁচে অসংখ্য মানুষের। এই ঘটনায় প্রশ্ন উঠেছে রেলের নিরাপত্তা নিয়ে। কেনই বা বন্ধ হল না গেট, কেনই বা লাইনের উপর দাঁড়িয়ে যানবাহন এ নিয়ে নানা জল্পনা ছড়িয়ে পড়েছে।

যদিও দেবীপুর ষ্টেশনের কর্মীরা জানিয়েছেন, দেবীপুর লেভেল ক্রসিংয়ের রেলগেটটি খারাপ হয়ে যায়। তাই রিভার্স লাইন দিয়ে ডাউন মা তারা এক্সপ্রেসকে পার করানো হয়। তবে গতি ছিল মাত্র ১৫ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায়। যদিও এই ঘটনায় এলাকার মানুষজন পাল্টা অভিযোগ করেছেন রেলের গাফিলতির দিকেই। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, দেবীপুর রেলগেটের পাশেই রয়েছে আপ প্ল্যাটফর্ম। কিন্তু সেখান থেকে কোনো রাস্তা না থাকায় যাত্রীদের রেললাইন ধরেই রেলগেটে আসতে হয়। একইসঙ্গে এই রেলগেটের ওপর দিয়েই প্রতিনিয়ত অসংখ্যা যাত্রীবাহী বাস লরী, সহ সমস্ত যানবাহন চলাচল করে।

আরও পড়ুন – উত্তরবঙ্গে উদ্ধার ২ লক্ষ ইয়াবা ট্যাবলেট

বাসিন্দাদের অভিযোগ, রেলগেটের কর্মী অধিকাংশ সময়ই নেশাগ্রস্থ হয়ে থাকেন। প্রায়শই তিনি সঠিক সময়ে রেলগেট নামাতে পারেন না। গত দুর্গাপুজোর সপ্তমীর দিনও এই রেলগেটে একজন কাটা পড়ে মারা গেছেন। বাসিন্দারা দাবী করেছেন, বারবার এই ঘটনায় রেল কর্তৃপক্ষ উপযুক্ত ব্যবস্থা নিক – যাতে সাধারণ মানুষকে আর দুর্ভোগে পড়তে না হয়। যদিও অভিযোগের বিষয়ে রেল দপ্তরের কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।