মুম্বই: সোমবার শেয়ার বাজার খুলতে বড় ধস নামতে দেখা যায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে আপাতত 45 মিনিট লেনদেন বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এদিন বাজার খোলার কিছুক্ষণের মধ্যেই সেনসেক্স প্রায় ১০ শতাংশ নেমে আসে। তখন ২৯৯২ পয়েন্ট নেমে সেনসেক্স পৌঁছে ২৬৯২৪ পয়েন্টে। অন্যদিকে নিফটি ৮৪২ পয়েন্ট বা ৯.৬৩ শতাংশ নেমে পৌঁছে যায় ৭৯০৩ পয়েন্টে ।

এদিন বাজার খুলতে ই লগ্নিকারীদের মধ্যে শেয়ারবাজার প্রবল প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়। বিশেষত ব্যাংক এবং অটোমোবাইল শেয়ার প্রবলভাবে ধাক্কা খেতে দেখা যায়। তাছাড়া অন্যান্য শেয়ারের দামেও বড় প্রথম দেখা যায়।

এমন পরিস্থিতিতে এদিন বাজার খোলার কয়েক মিনিটের মধ্যে প্রায় সামগ্রিক ভাবে শেয়ার বাজারে ১০ লক্ষ কোটি টাকার অবমূল্যায়ন হয়েছে।

এদিকে কোন ভাইরাসের প্রভাবে শেয়ারবাজারেও কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে। বোম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ অনুমতি দিয়েছে ব্রোকার এবং ট্রেডারদের কর্তৃপক্ষের দেওয়া নির্ধারিত জায়গা বদল অন্যত্র টার্মিনাল নিয়ে গিয়ে কাজ করার। যাতে ওয়াক ফ্রম হোম করতে পারা যায় সেজন্যই এমন ব্যবস্থা নেওয়া হয়। ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত এইভাবে কাজ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জ ও একই রকম ব্যবস্থা অনুমোদন করেছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।