রানিগঞ্জ (পশ্চিম বর্ধমান): কৃষি আইনের প্রতিবাদে দিল্লি ও মুম্বই কৃষক বিক্ষোভ চলছে। দিল্লিতে কৃষকদের উপর লাঠিচার্জের ঘটনায় পরিস্থিতি উত্তপ্ত। দেশজুড়ে সাধারণতন্ত্র দিবসে কৃষক বিক্ষোভে সামিল পশ্চিম বর্ধমানের কয়লাঞ্চল। কৃষি জমি কম এখানে। তবে স্থানীয় কৃষকরা ট্রাকটর মিছিল করলেন।

সারা ভারত কৃষক সভার আহ্বানে জেলার রানিগঞ্জে হয়েছে ট্রাকটর মিছিল। কয়লাঞ্চলের কৃষকরা ট্রাক্টর র‍্যালি করে দিল্লির কৃষক আন্দোলনকে সংহতি জানালেন।

মঙ্গলবার সকালে রানিগঞ্জের চাঁদা মোড় থেকে ট্রাক্টর মিছিল ২ নং জাতীয় সড়ক হয়ে রানিগঞ্জ মোড় হয়ে শহর পরিক্রমা করে বল্লভপুরের সুকুমার ব্যানার্জির মূর্তির সামনে শেষ হয়।

সারা ভারত কৃষক সভার আহ্বানে জাতীয় পতাকা সহ সংগঠনের পতাকা নিয়ে কৃষকরা ট্রাক্টর মিছিল করেন। পোস্টার, ব্যানার, প্লাকার্ডে কৃষি আইন বাতিলের দাবি নিয়ে জোরালো আওয়াজের স্পন্দন আছড়ে পড়েছে।

রানিগঞ্জের বিধায়ক রুণু দত্ত ও শ্রমিক কৃষক নেতারা ছিলেন এই কৃষক ট্রাকটর মিছিলে। কৃষি বিলের প্রতিবাদে কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন করেছে শ্রমিক সংগঠনগুলি। কৃষক সভার সাধারণ সম্পাদক ও প্রাক্তন সিপিআইএম সাংসদ হান্নান মোল্লার হুঁশিয়ারি, আইন বাতিল করতেই হবে সরকারকে। আন্দোলন চলবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।