সুজয় পাল, কলকাতা: টালিগঞ্জে গাড়ি দুর্ঘটনা-কাণ্ডে এবার তদন্তে নামল নির্মাতা সংস্থা টয়োটাও৷ লেক মলের সামনে যে গাড়ি দুর্ঘটনায় মডেল সোনিকা সিংহ চৌহানের মৃত্যু হয়েছে, জখম হয়েছেন অভিনেতা বিক্রম চট্টোপাধ্যায়, সেই গাড়িটির নির্মাতা সংস্থা টয়োটা৷ কোনওরকম যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে ফরেন্সিক দলের পাশাপাশি এবার টয়োটাও আসরে নামল৷ পাশাপাশি গাড়িতে এয়ারব্যাগ থাকা সত্ত্বেও কেন তা খোলেনি তাও পরীক্ষা করে দেখছেন সংস্থার বিশেষজ্ঞরা৷

পুলিশ সূত্রে খবর, দিনদুয়েক আগে টয়োটার কলকাতা অফিস থেকে বিশেষজ্ঞরা এসে টালিগঞ্জ থানার পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেন৷ পুলিশকে তাঁরা জানান, দুর্ঘটনাগ্রস্থ গাড়িটি তাঁরা ভাল করে পরীক্ষা করে দেখতে চান৷ যান্ত্রিক গোলযোগের কারণে এই ঘটনা ঘটেছে কিনা তা দেখবেন তাঁরা৷ পুলিশ অনুমতি দেওয়ার পরে টালিগঞ্জ থানার সামনে রাখা বিক্রমের গাড়িটির ভিতরে বাইরের বিভিন্ন অংশ খুঁটিয়ে পরীক্ষা করেন তাঁরা৷ গাড়িটির বিভিন্ন অংশের ছবি তুলে নিয়ে যান৷ প্রয়োজনীয় সবরকম তথ্য সংগ্রহ করার পরে তাঁরা নিজেদের অফিসে ফিরে যান৷ সেখানে গাড়িটির খুটিনাটি নিয়ে তাঁরা বিশেষজ্ঞদের সাহায্যে পরীক্ষা করবেন যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে কিনা৷ তারপর একটি রিপোর্ট তৈরি করবে টয়োটা৷ সেই রিপোর্টটি পরে মৌখিকভাবে তাঁরা পুলিশকেও জানিয়ে দেবে৷ টালিগঞ্জ থানার এক অফিসার বলেন, ‘‘ওই রিপোর্টটি আমরা চার্জশিটে উল্লেখ করতে পারব না৷ কিন্তু আমাদের তদন্তের ক্ষেত্রে রিপোর্টটি সাহায্য করবে৷’’

প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই দুর্ঘটনার কারণ জানতে ফরেন্সিক দল গাড়িটি পরীক্ষা করে গিয়েছে৷ তাঁরা রিপোর্ট দিলেই জানা যাবে গাড়ির কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছিল কিনা কিংবা কেন এয়ারব্যাগ কেন খোলেনি৷ ওই অফিসার বলেন, ‘‘ফরেন্সিক রিপোর্টের সঙ্গে টয়োটার রিপোর্টটিও আমরা মিলিয়ে দেখব৷’’
দুর্ঘটনার পরে প্রাথমিকভাবে পুলিশ জানিয়েছিল, এয়ারব্যাগ না খোলার জন্যই সোনিকার মৃত্যু হয়েছে৷ বিক্রমের পরিবার তখন জানিয়েছিল, তাঁরা টয়োটার বিরুদ্ধে মামলা করবেন৷ তারপরেই অবশ্য গাড়ি পরীক্ষায় নেমেছে প্রস্তুতকারী সংস্থাটি৷