তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: দেশ বিদেশের অসংখ্য পর্যটকদের অন্যতম ‘ডেস্টিনেশান’ ‘মন্দির নগরী’ বিষ্ণুপুরে অভিনব উদ্যোগ বাঁকুড়া জেলা পুলিশের। সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে ৩২ তম বিষ্ণুপুর মেলা। তার আগেই পর্যটকদের কথা ভেবে ‘ট্যুরিস্ট পুলিশ’ পরিষেবা শুরু হল এই জেলায়।

পর্যটকদের সহায়তা করার জন্য শহরে পুলিশের দু’টি গাড়ি টহলদারি চালানোর পাশাপাশি স্কুল মোড়ে ২৪ ঘন্টা ‘বিষ্ণুপুর ট্যুরিস্ট পুলিশ পোষ্ট’ চালু হলো। রবিবার এই পরিষেবার সূচনা করেন জেলা পুলিশ সুপার কোটেশ্বর রাও। উপস্থিত ছিলেন বিষ্ণুপুরের মহকুমা পুলিশ আধিকারিক প্রিয়ব্রত বক্সী ও আইসি শান্তনু মুখোপাধ্যায় প্রমুখ।

প্রাচীন মন্দির আর ভাস্কর্যের টানে সারা বছর অসংখ্য পর্যটক বিষ্ণুপুরে আসেন। বিশেষত শীতকালে এবং বিষ্ণুপুর মেলার দিন গুলিতে সেই সংখ্যাটা আরও কয়েক গুণ বেড়ে যায়। জেলা, রাজ্য, দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে এই সময় বিদেশ থেকেও প্রচুর পর্যটক এখানে আসেন। আর এখানে এসে তাঁরা যাতে কোনও ধরণের সমস্যায় না পড়েন তা নিশ্চিত করতেই, পুলিশের পক্ষ থেকে ‘ট্যুরিস্ট পুলিশ’ নিয়োগ করা হয়েছে এবং ২৪ ঘন্টা পরিষেবা দিতে বিশেষ টহলদারি গাড়ি, পুলিশ পোষ্ট চালু করা হয়েছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

জেলা পুলিশ সুপার কোটেশ্বর রাও বলেন, সোমবার থেকে বিষ্ণুপুর মেলা শুরু হচ্ছে। সেই কারণেই পর্যটকদের কথা ভেবে ২৪ ঘন্টা পুলিশী পরিষেবা চালু হচ্ছে। একই সঙ্গে ‘ট্যুরিস্ট পুলিশ পোষ্টে’র মাধ্যমে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখা হবে। কোথাও কেউ সমস্যায় পড়লে সঙ্গে সঙ্গে সমাধানের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

একই সঙ্গে মেলার দিন গুলিতে শহরে যান নিয়ন্ত্রণ করা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, গাইড ম্যাপ তৈরি করা হয়েছে। সেখানে পরিস্কার উল্লেখ রয়েছে দশটি পার্কিং জোন তৈরি করা হয়েছে। যেখানে দু’চাকা ও চার চাকা গাড়ি রেখে মেলা প্রাঙ্গনে দর্শনার্থীরা প্রবেশ করার সুযোগ পাবেন। তবে অ্যাম্বুলেন্স সহ অন্যান্য আপৎকালীন পরিষেবার গাড়ি গুলি যাতে কোনও ধরণের সমস্যার মধ্যে না পড়ে সেই বিষয়টিও সুনিশ্চিত করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।