সম্প্রতি ফোন প্রস্তুতকারক সংস্থা Realme বাজারে লঞ্চ করেছে Realme Buds Q2 true wireless stereo (TWS) earbuds। গতবছর চালু হওয়া Realme Buds Q কে সফল করতে এবং একটি kaleidoscope-like finish ইউনিক আকারের সঙ্গে বাজারে প্রকাশ করা হয়েছে এটি। এই এয়ারবাডসগুলি একবারের চার্জিংয়ে টানা ২০ ঘণ্টা পরিষেবা দিতে সক্ষম এবং এটিতে যুক্ত রয়েছে পরিবেশগত নয়েজ ক্যান্সেলিং (ইএনসি) পরিষেবা। এছাড়াও Realme Buds Q2 true wireless stereo (TWS) earbuds একটি ডেডিকেটেড গেম মোড রয়েছে যা অফার করে ৮৮ মিমি লো লেটেন্সিকে।

লঞ্চ হওয়া Realme Buds Q2 প্রকাশ করা হয়েছে PKR 3,999, ভারতীয় মূল্যে যার দাম ১,৯০০ টাকা। এই মূল্য অফারের জন্য রাখা হয়েছে সংস্থার তরফে। অফার ছাড়া এই এয়ারবাডস এর দাম রাখা হবে PKR 5,999, ভারতীয় মূল্যে যার দাম ২,৯০০ টাকা। কতদিন পর্যন্ত এই অফার দেওয়া হবে তা সংস্থার তরফে উল্লেখ করা হয়নি। Realme Buds Q2 নীল এবং কালো রঙে মিলবে গ্রাহকদের।

Realme Buds Q2 তে রয়েছে ফুল চার্জে ২০ ঘন্টা টানা প্লেব্যাক সময়। পাশাপাশি প্রতিটা এয়ারবাডস ৫ ঘন্টার প্লেব্যাক সময়ের পরিষেবা দিতে সক্ষম। Realme সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে ১০ মিনিট চার্জে এই এয়ারবাডসগুলিতে মিলবে ১২০ মিনিট সময় প্লেব্যাক সময়। এছাড়াও রয়েছে ইন এয়ার ডিজাইন এবং ১০ এমএম ডায়নামিক ড্রাইভারের সঙ্গে পলিমার কমপোজিট ডায়াফ্রাম ব্যবস্থা। এই এয়ারবাডসে যুক্ত করা হয়েছে একটি নতুন বেস বুস্ট প্লাস এনহেন্সমেন্ট টেকনোলজি।

গেম মুডের জন্য Realme Buds Q2 রয়েছে একটি ৮৮ এমএস লো লেটেন্সি এবং অডিও এবং ভিডিওর মধ্যে এনাবেলিং সেমলেস সিঙ্ক এর ব্যবস্থা। এর পাশাপাশি গ্রাহক এই এয়ারবাডস ব্যবহারে পাবে মিউজিক প্লে এবং পস, কলের উত্তর এবং বাতিল, গেমের ঢোকা এবং বেরনোর মতো একাধিক পরিষেবারগুলি স্পর্শ নিয়ন্ত্রণ সুবিধার মাধ্যমে। পরিবেশের অযাচিত শব্দ বাতিল করার জন্য থাকবে একটি পরিবেশগত নয়েজ ক্যান্সেলিং (ইএনসি) পরিষেবা। Realme Buds Q2 টিকে একটি kaleidoscope মতো সার্ফের আকার দেওয়া হয়েছে অনন্য চেহারার কারণ হিসেবে। এছাড়া চার্জিং বক্সটি একটি ডিম্বাকৃতি, যাতে রয়েছে একটি এলইডি ব্যবস্থা। এই এলইডি চার্জ শেষ হওয়ার ইঙ্গিত দিয়ে থাকে ব্যবহারকারীকে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.