ভুবনেশ্বর: আমফানের ধাক্কা না সামলাতেই ফের টর্নেডো। ১০ মিনিটের ঝড়ের তছনছ হয়ে গেল ওডিশার একাংশ। কেন্দ্রাপাড়া অঞ্চলের অন্তত ৪০ টি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঝড়ে পড়ে গিয়েছে বহু গাছ।

উপড়ে গিয়েছে একাধিক বিদ্যুতের খুঁটি। আহত হয়েছেন কেন্দ্রাপাড়ার ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার ১২ জন বাসিন্দা। এলাকা বিদ্যুহীন। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ফানেলাকৃতির টর্নেডো তেলেচুয়া এবং রাজনগরের দিকে সরে গেলে, কেন্দ্রাপাড়ায় ব্যাপক বৃষ্টিপাতও হয় ।

স্থানীয় এক বাসিন্দা বাপি জানান, “বিকেলে বাড়ির বাইরে দাঁড়িয়েছিলাম। হঠাৎই আকাশ অন্ধকার করে এল। প্রবল বেগে হাওয়া বইতে শুরু করল। দেখলাম একটা ঘন কালো মেঘের চক্র আমার দিকে ধেয়ে আসছে । ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। “

ঝড়ের দাপটে একের পর এক বিদ্যুতের খুঁটি পড়ে যাওয়ায় বিদ্যুতহীন গোটা এলাকা। স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, কয়েক সেকেন্ডের টর্নেডোর ২৪টি পরিবার মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। যদিও প্রাণহানির কোনও খবর মেলেনি সোমবার রাত পর্যন্ত।

কেন্দ্রাপাড়ার কালেক্টর জানিয়েছে, টর্নেডোর পরে অন্যান্য আধিকারিকদের সঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে গিয়েছিলেন তিনি। ২০টি বাড়ির ২৪টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত। মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে তাঁদের জন্য পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এছাড়া গাছ পালা সরানোর কাজ করছে প্রশাসন।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।