জুরিখ: ইবোলা রুখতে এবার কোমর বেঁধে নেমে পড়ল ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা৷ এই মারণরোগের বিশ্বজুড়ে সচেতনতার উদ্দেশ্যে ‘ ইলেভেন এগেইনস্ট ইবোলা’ নামক এক অভিযানে সামিল হল ফিফা৷

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, গ্যারেথ বেল, নেইমার, দিদিয়ের দ্রোগবা, ফিলিপ লাম সহ-১১ জন বিশ্বের প্রথম সারির ফুটবলাররা এই কর্মযজ্ঞে সামিল হয়েছেন৷ ১১টি সহজ পন্থা অবলম্বন করলেই ইবোলা রোখা যাবে বলে মনে করছেন ওয়ার্ল্ড ব্যাংক গ্রুপ ও ওয়ার্ল্ড হেল্থ ওরগানাইজেশনের ডাক্তাররা৷ কারণ তাঁরাও ফিফা-র এই উদ্যেগে সাড়া দিয়েছেন৷ সোমবার থেকেই ইলেভেন এগেইনস্ট ইবোলা পথ চলা শুরু করল৷ এই অভিযানের স্লোগান হয়েছে,‘ টুগেদার, উই ক্যান বিট ইবোলা’৷ বিভিন্ন রকমের পোস্টার, ব্যানার ও অ্যানিমেটেড ছবি ও রেডিওর মাধ্যমে জন সচেতনতা গড়ে তোলা হচ্ছে৷

নেইমার এই অভিযানে যুক্ত হতে পেরে বলছেন,‘ সবার আগে আমাদের সঠিক তথ্য পাওয়া দরকার৷ তবেই আমরা ইবোলার বিরুদ্ধে লড়াই করতে পারব৷ আমরা সকলেই আশাবাদী, এই অভিযানের মাধ্যমে আমরা সচেতনতা গড়ে তুলতে পারব৷ ইবোলায় ক্ষতিগ্রস্ত  ভাই-বোনেদের পাশে দাঁড়ানোই আমাদের লক্ষ্য৷’ নেইমারের পাশাপাশি ফিফা-র প্রেসিডেন্ট শেপ ব্লাটার বলছেন,‘ ফুটবলের মাধ্যমেই সবার কাছে পৌঁছানো যায়৷ ফুটবলই পারবে ইবোলার বিরুদ্ধে লড়াই করতে৷’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।