জম্মু-কাশ্মীর: ফের ভূ-স্বর্গে এনকাউন্টার। নিরাপত্তারক্ষীর হাতে খতম জঙ্গি কমান্ডার হারুন ওয়ানি। বুধবার জম্মু কাশ্মীরের ডোডরা জেলায় এই এনকাউন্টারের ঘটনা ঘটে।

সেনার এক অধিকর্তা জানিয়েছেন, ডোডরা জেলার গন্ডানা এলাকায় পুলিশ ও নিরাপত্তারক্ষী বাহিনীর সঙ্গে গুলির লড়াই বাঁধে সন্ত্রাসবাদীদের। আগে থেকে গোপন সূত্র মারফত নিরাপত্তারক্ষীদের কাছে খবর ছিল ওই এলাকায় আস্তানা গেড়েছে সন্ত্রাসবাদীরা। সেইমতো তল্লাশি অভিযান চালানোর সময় বাঁধে সংঘর্ষ।

গুলি বিনিময়ের সময় মৃত্যু হয় হিজবুল মুজাহিদ্দিনের কমান্ডার হারুন ওয়ানি-র। দাবি করা হচ্ছে, ওই জেলায় হিজবুলের অন্যতম মাথা ছিল এই হারুন। যুবকদের দলে যোগদান করানোর পাশাপাশি এলাকার নানা জায়গায় নাশকতার ছক কষাছিল হারুনেরই দায়িত্ব। সেনা সূত্রে খবর, ডোডরা জেলার গাত্তাহ এলাকায় বাড়ি ছিল ওই জঙ্গির।

এদিনের এই ঘটনার পাশাপাশি ঘোতেছে আরও একটি এনকাউন্টারের ঘটনা। গুলিতে খতম হয় আরও এক জঙ্গি। তার নাম জানা গিয়েছে আদিল। এর আগে একবার সেনাবাহিনীর সঙ্গে মুখোমুখি গুলির লড়াই হয়েছিল আদিলের। সেবার পালিয়ে যেতে সক্ষম হয় সে। কিন্তু এবার নিরাপত্তারক্ষীদের হাতেই প্রাণ গেল তার।

সেনার তরফে জানানো হয়েছে, এনকাউন্টারের ঘটনায় একে 47 উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি উদ্ধার করা হয়েছে ৩ টি ম্যাগাজিন সহ ৭৩ রাউন্ড গুলি। এর সঙ্গে পাওয়া গিয়েছে চায়না গ্রেনেড ও একটি রেডিও সেট-ও। মনে করা হচ্ছে, এই রেডিও সেট দিয়ে দলের অন্য লোকেদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখত ওই জঙ্গিরা। একই সঙ্গে সম্ভবত ভূ-স্বর্গে নাশকতার চেষ্টাও চালাচ্ছিল তাঁরা।