অনুরাগের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে ফের সরব কঙ্গনা, কী বলছে টলিউড
অনুরাগের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে ফের সরব কঙ্গনা, কী বলছে টলিউড

স্বরলিপি দাশগুপ্ত- বিতর্কের শিরোনামে বার বার উঠে আসছে বলিউড। অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে একের পর এক ইস্যুকে নিয়ে আলোচনার কেন্দ্রে থাকছে মুম্বইয়ের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি।

বিগত কয়েকদিন ধরেই অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের সঙ্গে বাকযুদ্ধে জড়িয়েছেন পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ। এরই মধ্যে অভিনেত্রী পায়েল ঘোষ অনুরাগ কাশ্যপের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ এনেছেন।

পায়েলের অভিযোগ ২০১৪-১৫ সালে অনুরাগের সঙ্গে তাঁর প্রথম দেখা। তৃতীয় সাক্ষাতে তাঁর সঙ্গে অভব্য আচরণ করেছিলেন পরিচালক।

পায়েল এই টুইট করার পরেই #ArrestAnuragKashyap ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কঙ্গনা এই হ্যাশট্যাগের সমর্থনেও সরব হন। অন্যদিকে আর এক অভিনেত্রী তাপসী পান্নু পায়েলের এই টুইট দেখার পরেই অনুরাগকে ‘সবচেয়ে বড় নারীবাদী’ হিসেবে সম্বোধন করেছেন।

এই প্রসঙ্গে কী বলছে টলিউড?

পরিচালক কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায় এই বিষয়ে বলছেন, “বিষয়টি দুর্ভাগ্যজনক। অবশ্যই তদন্ত হওয়া উচিত। ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি পরিচ্ছন্ন থাকুক সেটাও কাম্য। তবে যা যা ঘটছে, তার পিছনে কোনও রাজনৈতিক দুরভিসন্ধি থাকছে কি না, সেটাও মাথায় রাখা দরকার। কোনও ব্যক্তিগত কারণ বা রাজনৈতিক স্বার্থ রয়েছে কি না তা দেখে নেওয়া প্রয়োজন। এছাড়া বাকি আইনের পথে চলুক।”

বলিউডে নিজেকে নারীবাদী হিসেবে দাবি করেন কঙ্গনা রানাউত। সুশান্তের মৃত্যুর পরে তিনি বলিউডের স্বজনপোষণ নিয়েও সরব হয়েছিলেন। এর পরেও বিভিন্ন বিষয়ে মন্তব্য করে তিনি বিতর্কে জড়িয়েছেন। এককালে অনুরাগ কাশ্যপের ভাল বন্ধু ছিলেন তিনি। কিন্তু সম্প্রতি টুইট করে বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি পায়েল ঘোষের পাশে রয়েছেন।

এই প্রসঙ্গে টলি অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র বলছেন, “হ্যাশট্যাগ মিটু যখন শুরু হয়, তখন বেশ কিছু ঘটনা উঠে আসে যেখানে মহিলারা সত্যিই হেনস্থার শিকার। সত্যিই মহিলারা বহু জায়গায় হেনস্থার শিকার হয়ে থাকেন। কিন্তু এমন মহিলাও রয়েছেন যাঁরা মিটু মুভমেন্টকে ব্যবহারও করেছেন।

পুরুষ মানেই তিনি হামলে পড়ছেন তা তো নয়! তবে এই বিষয়টি সম্পর্কে আমি পুরোপুরি না জেনে কোনও মন্তব্য করতে চাই না। শুধুমাত্র একটি টুইট দেখে কিছু বলতে পারব না। কিছু রাজনৈতিক বিষয়ও রয়েছে। কোনও রাজনৈতিক দল হয়তো উসকানি দিচ্ছে। তাই বিষয়গুলি কতটা সত্যি বা মিথ্যে তা আমার কাছে স্বচ্ছ নয়।”

কঙ্গনা যেভাবে একের পর এক মন্তব্য় করে বিতর্কে জড়াচ্ছেন সেই বিষয়ে শ্রীলেখা বলছেন, “কঙ্গনাকে নিয়েও বহু কথা বলা হচ্ছে শেখর সুমনের ছেলেকে জড়িয়ে। কিছু কথা ও ঠিকই বলেছে, যেমন নেপোটিজম রয়েছে। আমিও এই বিষয় নিয়ে কথা বলেছি। শুধু আমাদের ইন্ডাস্ট্রি নয়। সর্বত্রই রয়েছে।

আর যাঁরা বলেন নেপোটিজম নেই, তাঁদের সঙ্গে যে নেপোটিজম এর প্রধান চালকদের যোগসাজস রয়েছে তা বোঝাই যায়। কিন্তু এটা ছাড়া কঙ্গনা অনেক বিষয় নিয়েই অনেক বেশি কিছু বলছেন। সেগুলি কতটা ঠিক বা রাজনৈতিক ভাবে মোটিভেটেড তা আমি জানি না।”

কঙ্গনা সম্পর্কে টলিউড অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তী কোনও মন্তব্য করতে চাননি। অভিনেত্রী কথায়, “শি ইজ টু লাউড। তাই সত্য়িই তিনি কী বলছেন সেই দিকে নজর রাখি না।”

বিগত কয়েক মাসেও সোশ্যাল দুনিয়ায় তারকারা পরস্পরকে বাক্যবাণে বিঁধেছেন। এই বিতর্কে জড়িয়েছেন কঙ্গনা, তাপসী, স্বরা ভাস্কর, অনুরাদ কাশ্যপ, ঊর্মিলা মাতন্ডকর সহ আরও অনেকে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।