ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, ভাঙড়: আজ, রবিবার ভাঙড়ে সভা করবে তৃণমূল কংগ্রেস৷ বেলার দুটোর সময় সভা শুরু হওয়ার কথা৷ পাওয়ার গ্রিড প্রকল্পের উল্টোদিকে সভার মঞ্চ বাঁধা হয়েছে। আরাবুল ইসলাম ও রেজ্জাক মোল্লা ছাড়াও সভায় থাকতে পারেন জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি শোভন চট্টোপাধ্যায়।

আজকের সভায় দলের স্থানীয় সব নেতাকে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই সভা থেকে মূলত পাওয়ার গ্রিড তৈরির পক্ষে সওয়াল করবেন তৃণমূল নেতারা। এদিন, তৃণমূল নেতা আরাবুল ইসলাম বলেন, এলাকার মানুষ পাওয়ার গ্রিড চাইছেন৷ বহিরাগতরা এসেই গন্ডগোল পাকাচ্ছে৷ এখানে পাওয়ার গ্রিড হবেই৷ এদিন যাতে শান্তিপূর্ণ সভা করা যায় তার বন্দোবস্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আরাবুল৷ তিনি বলেন, প্রশাসনকে জানিয়েছি৷ আমরা দলের সবাই পরিস্থিতির উপর নজর রাখব৷আরাবুলের কথায়, এই সভায় ২৫-৩০ হাজার লোকের জমায়েত হবে বলে আশা করছি৷

লোক আনার বিষয়ে শুক্রবার ভাঙড়ের বিভিন্ন অঞ্চলে কর্মীদের নিয়ে ছোট ছোট বৈঠক করেন কাইজার আহমেদ , নান্নু হোসেন , ওহিদুল ইসলামরা৷ ভাঙড়ের বেশিরভাগ মানুষই যে পাওয়ার গ্রিড চাইছেন , সেটাই বোঝাতে চাইছে শাসকদল৷ সভায় মাছিভাঙা, খামারআইট , পদ্মপুকুর , উড়িয়াপাড়া থেকে গ্রামবাসীদের নিয়ে আসাই এখন বড় চ্যালেঞ্জ তৃণমূল নেতাদের৷
গত কয়েকদিনে ধরেই বিক্ষিপ্তভাবে উত্তপ্ত হয়েছে ভাঙড়। জমিরক্ষা কমিটির অভিযোগ, বিনা কারণে তাদের উপর হামলা চালিয়েছে শাসকদল৷। যদিও পালটা অভিযোগ করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। তারা জানিয়েছিল, তৃণমূলের দুই কর্মীকে অপহরণ করা হয়েছিল।

এদিন সভা ঘিরে যাতে কোনও রকম বিশৃঙ্খলা না সৃষ্টি হয় তাই বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে৷ জানা গিয়েছে সাড়ে তিনশো থেকে চারশো পুলিশ র্যা ফ থাকবে এ দিন৷ থাকবেন জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদমর্যাদার দু’জন আধিকারিক৷ পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে বারুইপুরের এসপি কিংবা আলিপুরের এসএসপিও নতুনহাটে আসতে পারেন৷