স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: অপুষ্ট শিশুদের পুষ্টিকর খাবারের যোগানের স্থায়ী সমস্যা সমাধানের অভিনব উদ্যোগ নিল বাঁকুড়া জেলা প্রশাসন৷ জেলা শাসকের বিশেষ তহবিল থেকে জেলার বিভিন্ন অংশে এই সহায়তা করা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে৷

অপুষ্টির স্থায়ী সমস্যা সমাধানে ‘অপুষ্টি’তে ভোগা শিশুদের চিহ্নিত করণের কাজ শেষে অভিভাবকদের মুরগীর ছানা দেওয়া হয়েছে৷ প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতর সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গিয়েছে, বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর পুর ও ব্লক এলাকার ১৬৯ জন অপুষ্ট শিশুর পরিবারের লোকেদের হাতে এই মুরগীর ছানা তুলে দেওয়া হয়েছে৷ এর ফলে ওই মুরগী থেকে পাওয়া ডিম থেকে শিশুদের পুষ্টির সমস্যা অনেকটাই দূর করা যাবে বলে মনে করা হচ্ছে৷

বিষ্ণুপুর ব্লক প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের আধিকারিক প্রসেনজিৎ পাল সাংবাদিকদের বলেন, জেলা শাসকের বিশেষ তহবিল থেকে অপুষ্টিতে ভোগা শিশুদের পরিবারের হাতে ‘রোড আয়রন রেড’ প্রজাতির মুরগীর ছানা তুলে দেওয়া হয়েছে৷ পরিবারের লোকেরা ওই মুরগী পালন করবেন৷ আর মুরগী থেকে পাওয়া ডিম শিশুদের খাইয়ে অনেকটাই অপুষ্টি দূর করা যাবে বলে তিনি জানান৷

বিষ্ণুপুরের বড়কালিতলার বাসিন্দা ধীরেন্দ্রনাথ হেঁস বলেন, “আমার মেয়ের ওজন কম৷ আমাকে দশটি মুরগীর ছানা দেওয়া হয়েছে৷ আমার নিজের বাড়িতে যেহেতু মুরগী পালনের পরিকাঠামো নেই সেইকারণে শ্বশুর বাড়িতে রেখে আপাতত ওই মুরগী গুলি পালন করব৷ আর ওই মুরগী থেকে পাওয়া ডিম আমার মেয়েকে খাওয়াব৷ আশা করি এর ফলে অপুষ্টির সমস্যা অনেকটাই মিটবে৷”

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।