লখনউ: চার মেয়ের সম্ভ্রম ও জীবন রক্ষায় এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের শরণাপন্ন হলেন বাবা৷ চিঠি লিখে জানান প্রতিবেশী কিছু যুবক মাসের পর মাস তাঁর মেয়েদের হেনস্থা করে চলেছে৷ এমনকী তার জেরে মেয়েদের জীবন সংশয়ও দেখা দিয়েছে৷ অবস্থা এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে বাড়িতে থাকাও আর তাঁরা নিরাপদ মনে করছেন না৷

ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের মেরুটের মাওয়ানা শহরের৷ চিঠি লিখে ওই ব্যক্তি জানিয়েছেন, বাইরে বেরলেই মেয়েদের হেনস্থা করা হত৷ ভয়ে তারা মাদ্রাসায় যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে৷ কিন্তু ওই যুবকেরা এতটাই বেপরোয়া হয়ে ওঠে যে ঘরে এসে হুমকি দিয়ে যায়৷ একদিন জোর করে ঘরে ঢুকে পড়ে তারা৷ অ্যাসিড নিয়ে এসে মেয়েদের উপর হামলা করার ভয় দেখায়৷ এমনকী তাঁর ১২ বছরের মেয়েকে যৌন নিগ্রহ করা হয় বলে অভিযোগ৷

সংবাদসংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ওই ব্যক্তির ১৭ বছর বয়সী এক মেয়ে জানিয়েছেন, ওই ছেলেদের জ্বালায় মাদ্রাসায় যাওয়া বন্ধ করে দিতে হয়েছে৷ একদিন জোর করে ঘরে ঢুকে তাদের উপর অ্যাসিড হামলার হুমকি দেয়৷ তারপর থেকে বাড়িতে থাকাও মুশকিল হয়ে গিয়েছে৷

তিনি জানিয়েছেন, ওই ছেলেদের পরিবারকে বার বার জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি৷ উল্টে নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে গিয়েছে দিন দিন৷ মেয়েরা রাস্তায় রেব হলে তাদের পিছু নিত৷ নানা ভাবে হেনস্থা করত৷ তাই বাধ্য হয়ে পুলিশ, মুখ্যমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লেখার সিদ্ধান্ত নেন৷ চিঠিতে তিনি তাঁর মেয়েদের জন্য প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা দেওয়ার আর্জি জানান৷ পুলিশ অভিযোগের কথা স্বীকার করেছে৷ জানিয়েছে, তদন্ত শুরু হয়েছে৷ সব বিষয় খতিয়ে দেখা হবে৷