ডায়মন্ডহারবার: তৃণমূলকে হটাতে এবার যদি পশ্চিমবঙ্গে বিজেপিকে আনা হয় তবে সেটা আত্মঘাতীর শামিল হবে ৷ এমনটাই মনে করছেন ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার৷ তাই তিনি রাজ্যের ভোটারদের এমন চিন্তা করার আগে দুবার ভাবতে বললেন৷শুক্রবার মথুরাপুরে নিখিলবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির ৪৬ তম রাজ্য সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে করেন তিনি সেখানেই তিনি এমন কথা বলেন৷

মানিক সরকারের বক্তব্য, তৃণমূল কংগ্রেসের সন্ত্রাস থেকে উদ্ধার পেতে এখন অনেকেই বিজেপিকে ক্ষমতায় আনার কথা ভাবছে কিন্তু তা ভাবার আগে আগে সব কিছু যাচাই করে নেওয়া উচিত। কারণ হিসেবে তিনি ত্রিপুরার প্রসঙ্গ তোলেন৷ তিনি মনে করান, সেখানকার মানুষ বামফ্রন্টকে হঠিয়ে বিজেপিকে এনে এখন আফশোষ করছে।

তিনি বলেন, লোকসভা ভোটে বিজেপি প্রত্যাশার চেয়ে বেশি আসন পেয়েছে। আর সেটা দেখে যদি মানুষ ভেবে থাকেন, আগামি বিধানসভা নির্বাচনে এখানে বিজেপিকে ক্ষমতায় আনা হবে তবে তা সঠিক হবে না। তেমন কিছু করলে বরং সেটা হবে আত্মঘাতী চিন্তার শামিল।

তবে ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী, এদিন তৃণমূল কংগ্রেসেরও সমালোচনা করেছেন। তিনি অভিযোগ করেন, বামফ্রন্ট আমলে এ রাজ্যে এত সন্ত্রাস এবং আর্থিক দুর্নীতি হয়নি। তারই জেরে শাসকদল তৃণমূলের উপর মানুষের ঘৃণা তৈরি হচ্ছে। এজন্য তৃণমূলকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন তিনি। ওই সভায় অন্যদের মধ্যে হাজির ছিলেন প্রাক্তন মন্ত্রী কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়, বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী এবং শিক্ষাবিদ পবিত্র সরকার।