স্টাফ রিপোর্টার (বাঁকুড়া): শাসক দলের পার্টি অফিস ভাঙার অভিযোগ উঠলো গেরুয়া শিবিরে বিরুদ্ধে। ঘটনাটি বাঁকুড়ার পাত্রসায়েরের নারায়ণপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার।

তৃণমূলের অভিযোগ, শনিবার রাতে নারায়নপুর এলাকায় তাদের পার্টি অফিস ভাঙচুর করে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। অ্যাসবেসটাসের ছাউনি দেওয়া দলীয় অফিস ভাঙ্গচুরের পাশাপাশি ভেতরে থাকা বেশ কিছু জিনিস নষ্ট করা হয়েছে বলে অভিযোগ।

পাত্রসায়ের ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের যুব সভাপতি সুব্রত দত্ত বলেন, শুধু নারায়ণপুর নয় গোটা পশ্চিমবঙ্গেই সন্ত্রাস চালাচ্ছে বিজেপি। মানুষ সব কিছু এখন মিডিয়ার মাধ্যমে দেখতে পাচ্ছেন। ‘উন্নয়নের সঙ্গে পেরে উঠতে না পেরে’ রাতের অন্ধকারে সুপরিকল্পিতভাবে বিজেপি অশ্রিত দুষ্কৃতিরা এই কাণ্ড ঘটিয়েছে দাবী করে তিনি এই ঘটনার তিনি তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানান।

বিজেপির মতো তারা সন্ত্রাসে বিশ্বাসী নন দাবী করে তিনি আরো বলেন, বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে। প্রশাসনের উপর ভরসা আছে। এবিষয়ে প্রশাসনিকভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি যথেষ্ট আশাবাদী বলে জানান।

অন্যদিকে, বিজেপি এই ঘটনার সঙ্গে তাদের যুক্ত থাকার অভিযোগ সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করেছে। নারায়ণপুর অঞ্চল বিজেপি সভাপতি দেবু দিগার তৃণমূলের তরফে তোলা অভিযোগ ভিত্তিহীন দাবী করে বলেন, তাদের দল এই ধরণের কাজে বিশ্বাসী নয়। আমাদের কাছে যা খবর, নারায়ণপুরের তৃণমূল তাদের এক সভাপতিকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়, ফলে নারায়ণপুরে তৃণমূলের দুটো গোষ্ঠী সৃষ্টি হয়। নতুন ও পুরাণো সভাপতির গোষ্ঠী দ্বন্দের ফলেই ঐ পার্টি অফিস ভাঙচুরের ঘটনা বলে তিনি দাবী করেন।