কলকাতা: ২৮ অগস্ট অর্থাত্‍ আজ তৃণমূল দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী৷ পাশাপাশি একই দিনে গান্ধিমূর্তির পাদদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি রয়েছে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের৷ ‌JEE ও NEET পিছনোর দাবিতে এই কর্মসূচি৷

মেডিক্যালের সর্বভারতীয় অভিন্ন প্রবেশিকা পরীক্ষা (নিট) এবং সর্বভারতীয় জয়েন্ট পরীক্ষা (জেইই) পিছনোর দাবিতে পথে নামছে তৃণমূল৷ আগেই এই বিষয় সুর চড়িয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কোরোনা পরিস্থিতিতে JEE-NEET পরীক্ষা পিছানোর জন্য কেন্দ্রের কাছে আবেদন জানিয়েছেন তিনি৷ তারপরও কেন্দ্র কোনও সিদ্ধান্ত না নেওয়ায়,এবার পিছনোর দাবিতে পথে নামছে তৃণমূল৷

তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে করোনা বিধি মেনেই গান্ধি মূর্তির পাদদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে৷ ‌JEE ও NEET পিছনোর দাবিতে দিল্লির উদ্দেশ্যে কলকাতার রাজপথ থেকে আওয়াজ তোলা হবে৷

JEE ও NEET পিছনোর দাবিতে সোনিয়া গান্ধি সহ অন্যান্য অ-বিজেপি শাসিত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ওই বৈঠকে তিনি বলেন, দেশের সর্বত্র গান্ধীমূর্তি রয়েছে, প্রয়োজনে আমরা সেখানে বসব৷ এরপরই তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ২৮ অগস্ট কলকাতার গান্ধিমূর্তির পাদদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি ডাক দিয়েছে৷

এছাড়া শুক্রবার সকালে দলীয় পতাকা তুলবেন নেতৃবৃন্দ৷ এদিন বেলা তিনটের সময় ভার্চুয়াল বৈঠকে ভাষণ দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ওই ভাষণে ছাত্র-যুবদের উদ্দেশে কী বলেন দলনেত্রী সেদিকেই তাকিয়ে তৃণমূল শিবির।

সেপ্টেম্বরের শুরুতে সারা দেশে মেডিক্যালের সর্বভারতীয় অভিন্ন প্রবেশিকা পরীক্ষা (নিট) এবং সর্বভারতীয় জয়েন্ট পরীক্ষা (জেইই) হওয়ার দিন ধার্য হয়েছে। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের তরফে স্বাস্থ‌্যবিধি মেনে নানা পদক্ষেপের কথা ঘোষণাও করা হয়েছে।

কিন্তু কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে অসন্তোষ তৈরি হয়েছে৷ করোনা পরিস্থিতিতে সংক্রমণের আশঙ্কা করছেন অনেক রাজ্য। শুরু থেকেই সেপ্টেম্বরে পরীক্ষা নেওয়ার এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পরীক্ষা পিছনোর আবেদন করে পর পর দু’বার কেন্দ্রকে চিঠিও লেখেন তিনি৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I