স্টাফ রিপোর্টার, সিউড়ি: “ত্রিপুরায় কংগ্রেস আত্মসমর্পণ করেছে৷ ময়দান ছেড়ে পালিয়েছে৷ কিন্তু, তৃণমূল কোনও দিন মাঠ ছেড়ে পালাবে না৷ বুক চিতিয়ে লড়াই করবে৷’’ সোমবার বীরভূমের নলহাটিতে তৃণমূলের সভামঞ্চ থেকে এমন হুংকার ছুঁড়লেন অনুব্রত মণ্ডল৷

সোমবার বিকালে নলহাটি-১ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের মহিলা সম্মেলনে আয়োজন করা হয়৷ ওই সম্মেলনে অংশ নেন তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল৷

আরও পড়ুন: মুখ্যমন্ত্রী সভামঞ্চে আচমকা উঠে পড়া যুবতীকে চাকরি দিল প্রশাসন

সভামঞ্চ থেকে বিজেপিকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “ত্রিপুরায় তোমরা জিতেছ৷ তাতে আমার কী বয়ে গেল৷ ত্রিপুরায় বামফ্রন্ট ক্ষমতায় ছিল ২৫ বছর৷ তারা হারল না জিতল তাতে আমার কিছু যায় আসে না৷’’

এরপরই স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে বলেন, ‘‘কংগ্রেস আত্মসমর্পণ করেছে৷ ময়দান ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছে৷ আমরা লড়াই করলে পালাব না৷ আমাদের ভয় দেখিয়ে কিছু করা যাবে না৷ আমরা ময়দানে লড়াই করে জিতে আসব৷ কেউ নাকি বলছে, এবার চোখ বাংলায়৷ কিন্তু, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের কাছে কোন চোখ কাজ করবে না৷”

আরও পড়ুন: বিশ্বভারতীর দায়িত্ব থাকছে সবজুকলির হাতেই

সদ্য-সমাপ্ত নলহাটি পুরনির্বাচনে তৃণমূল জয়ী হলেও তাদের বিরুদ্ধে বিশ্ববাংলা রাখি লাগিয়ে ভোটের দিন রিগিং করার অভিযোগ উঠেছিল। অসহায় ভাবে তৃণমূলের স্ট্যাটেজির কাছে আত্মসমর্থন করেছিল বিজেপি-সহ বিরোধীরা। কিন্তু গত বার পঞ্চায়েত নির্বাচনে নলহাটিতে সমর্থন আদায় করতে পারেনি অনুব্রতবাবুর দল৷

যদিও পরবর্তীতে দলবদলের জেরে ক্ষমতা দখল করে তৃণমুল৷ তাই নিজের স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে দলের নেতৃত্বকে হুঁশিয়ারি দিয়ে অনুব্রত বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নলহাটিতে পাঁচ হাজার বাড়ি দিয়েছেন৷ ওই বাড়ির জন্য কেউ যদি টাকা চায় তাহলে থানায় জানাবেন। না হলে আমাকে জানাবেন। আমি তাদের গ্রেফতার করাব৷”

আরও পড়ুন: ভাতার জন্য রাজ্যে ২৫৮কোটি বরাদ্দ মমতার, জেনে নিন কারা পাচ্ছেন

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ